অনেকটা মজা করতে করতেই একদিন ঠিক করেছিলাম সিঙ্গারা বানাবো! ভিনদেশে দেশি খাবার রান্নার পদ্ধতির জন্য গরিবের সহায় ইউটিউব তো আছেই। ভালমত রপ্ত করার জন্য এক্সপেরিমেন্টও করলাম। দেবযানীকে বিশেষ ধন্যবাদ এই রান্না অভিযানে “ওয়াটসন” এর ভূমিকা নেয়ার জন্য! (যদিও এই ওয়াটসন ডাকার ব্যাপারে সে বরাবরই দ্বিমত পোষণ করে! :/)

সিঙ্গারা এবং তার সাথে টমেটো/সরিষার সস, পেঁয়াজ আর এক কাপ গরম চা! লাইফ ইজ বিউটিফুল! 

সেই রান্নার একটি ছবি আমি প্রমাণ হিসেবে উপস্থাপন করা হল! সিঙ্গারা বানানো আসলেই অনেক সোজা!

টোটকা(Tips):

  • প্রথমবারের মত বানাতে গেলে হাতে সময় কমপক্ষে ১ ঘন্টা রাখা চাই।
  • ভাঁজ দেয়ার সময় একটু খেয়াল রাখবেন! 🙂
  • পুড় বানানোর সময় চাইলে আপনার পছন্দমত মটর, বাদাম, অ-উদ্ভিজ্জ ইত্যাদি দিতে পারেন।
  • ভাজতে হবে একদম মধ্যম আঁচে! নাহলে পুড়ে যাবে আপনার আস্বাদ্য!

সিংগারার ইতিহাস(উইকি থেকে): এটা কিন্তু মধ্য প্রাচ্যের খাবার!

The samosa is claimed to have originated in the Middle East (where it is known as sambosa[8]) prior to the 10th century.[9] Abolfazl Beyhaqi (995-1077), an Iranianhistorian mentioned it in his history, Tarikh-e Beyhaghi.[10] It was introduced to the Indian subcontinent in the 13th or 14th century by traders from Central Asia.[6]

(সিঙ্গারা, পরোটা, ম্যাংগো ইউগার্ট, মুরগী-আলু)


Siddika Kabir’s Bangla Recipe: Shingara


Singara Recipe by Rownak


How to make “Shingaras”


রেসিপি : মুচমুচে সিঙ্গারা (সূত্রঃ সুস্বাদু ও লোভনীয় খাবার এর এই ফেসবুক পোস্ট!)

ডো তৈরির উপকরণ :
ময়দা – ২ কাপ
কালজিরা – ১/২ চা চামচ
তেল – ২ ১/২ টেবিল চামচ
লবণ – ১/২ চা চামচ
বেকিং পাউডার – ১ চা চামচ (ঐচ্ছিক )


প্রণালী :
– সব উপকরণ একসাথে মিশিয়ে নিন।
– পানি দিয়ে শক্ত ডো তৈরি করুন।
– রুটির ডোর মতো ডো হবে।
– ১ ঘণ্টা ঢেকে রাখুন।


পুর তৈরির উপকরণ :
আলু – ৩-৪ টি
পাঁচফোড়ন – ১/২ চা-চামচ
পেঁয়াজ কুচি – ১ কাপ
কাঁচামরিচ কুচি – স্বাদমতো
কাঁচা বাদাম – ২ টেবিল চামচ
মটর / ছোলা সিদ্ধ – ১/২ কাপ
রাঁধুনি বিফ মশলা – ১/২ প্যাকেট (অন্য মাংসের মসলাও দেয়া যাবে।)
তেজপাতা – ১-২ টি
তেল – ৩ টেবিল চামচ
লবন- পরিমানমতো


প্রণালী :
– আলু খোসা ছাড়িয়ে কিউব করে কেটে নিন
– বাদাম কিছুক্ষন ভিজিয়ে রাখুন।
– প্যানে তেল গরম করে পাঁচফোড়ন দিন।
– এবার পেঁয়াজ কুচি দিয়ে ভাজুন।
– পেয়াজ ভাজা হয়ে গেলে সব মশলা দিয়ে দিন।
– মশলা ভাল করে কষিয়ে নিন।
– আলু , বাদাম ও পরিমানমতো পানি দিয়ে ঢেকে দিন।
– আলু সিদ্ধ হয়ে আসলে মটর দিয়ে দিন।
– ঝোল মাখা মাখা হয়ে আসলে নামিয়ে নিন।


সিঙ্গারার ভাজ :
.
ভাজ ছবিতে ভালভাবে দেখানো হয়েছে।


ভাজার প্রণালী :
– ডুবো তেলে ভাজতে হবে।
– তেল মৃদু আঁচে অনেকটা সময় গরম করে নিন।
– আচ বেশি হলে সিঙ্গারা বেশি বাদামি হয়ে যাবে।
– তিনটি করে সিঙ্গারা মৃদু আঁচে ১৫-২০ মিনিট ভাজুন।
– হালকা বাদামি ও মচমচে হলে নামিয়ে নিন।


টিপস :
* পাঁচফোড়ন পছন্দ না করলে পাঁচফোড়নের স্থানে সামান্য জিরা দিতে পারেন।
* আগে পুর ঠাণ্ডা করে নিয়ে সিঙ্গারার ভাজে দিবেন।
* আমি ঝটপট তৈরি করার জন্য রাঁধুনি প্যাকেট মশলা ব্যাবহার করি আপনারা ইচ্ছা করলে গুঁড়া ধনিয়া , জিরা , আদা ও রসুন বাটা দিতে পারেন।
পরিবেশন :
সস অথবা তেঁতুলের চাটনী দিয়ে বিকালের নাশতায় চায়ের সাথে গরম গরম পরিবেশন করুন।


এছাড়া পড়তে পারেনঃ

ছবিসূত্রঃ ইন্টার্নেট