রিডিং পরীক্ষাতে ভালো করার জন্য, খুব তাড়াতাড়ি পড়া শিখতে হবে। আমি সবসময় চিন্তা করি ১০০ মিটার স্প্রিন্টে আছি। আসলে, আপনি উত্তর বের করতে পারলে দেখবেন শব্দ না  বুঝলে ও উত্তর দিতে পারবেন। আজ আমি আলোচনা করবো আপনার দ্রুততা বাড়ানোর মজার সব বিষয় নিয়ে।

আস্তে পড়ছেন কেন?

প্রথমে বের করতে হবে, আস্তে কেন পড়ছেন? নিচের বিষয়গুলো মিলিয়ে দেখুনঃ

  • আপনি প্রতিটি শব্দ বুঝে পড়ছেন।
  • একেবারে শুধু একটি শব্দ পড়ছেন।
  • কঠিন শব্দ অথবা অর্থ না বুঝলে থেমে যাচ্ছেন।
  • বাক্য দুই- তিনবার অথবা বারবার  পড়ছেন অর্থ বুঝার জন্য।

উপরের পয়েন্ট গুলো খুব দরকার যখন আপনি ক্লোজ রিডিং করবেন, কিন্তু সবসময় না। আপনি যেটা  করবেন সেটা হলঃ স্কিম্মিং! আপনি পড়বেন একটা সাধারন মানে বুঝার জন্য কিন্তু প্রতি শব্দ বুঝতে হবে না।

সোজা হাতে ঘি উঠানো!

আমরা সবসময় ডান থেকে বামে পড়ি, কিন্তু উপর থেকে নিচে পড়া সম্ভব! আপনার আঙ্গুল প্রথম লাইনের মাঝখানে বসান। তারপর খুব তাড়াতাড়ি পড়তে থাকুন এবং আঙ্গুল আস্তে আস্তে পরের লাইন এ নিয়ে যান। আপনার আঙ্গুল আস্তে আস্তে নিচে নামবে মাঝখান দিয়ে এবং আপনি তাল মিলিয়ে তাড়াতাড়ি পড়তে থাকবেন। শব্দ না বুঝলে আঙ্গুল থামবে না। যারা আঙ্গুল দিয়ে ঘি খাবেন না তাদের জন্য নিচের ওয়েবসাইট টা অনেক কাজ দিবে।

http://www.cueprompter.com/

কাগজ দিয়ে লুকানো

এটা খুব সহজ কাজ! আপনি ছোট কাগজ রাখবেন এবং প্রতি লাইন পড়ার পর সঙ্গে সঙ্গে কাগজ দিয়ে ঢেকে দিবেন যাতে আবার না দেখতে পারেন। আমরা অনেক সময় এক লাইন দুইবার পড়ি, তাই কাগজ দিয়ে ঢেকে ফেললে এ অভ্যাস থাকবে না।

আঙ্গুলের লাফ!

সবসময় চেষ্টা করবেন সব্দ ভেঙ্গে ভেঙ্গে না পড়ে তিনটি শব্দ পড়তে, এজন্য আপনার আঙ্গুল প্রতিবার তিনটি শব্দের পর থামাবেন। আমরা মার্কার দিয়ে যেমন মার্ক করি তেমন তিনটি শব্দ পর পর আঙ্গুল থামাবেন এবং একবারে তিনটি শব্দ পড়বেন। এভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে আপনার আঙ্গুল বসাবেন যাতে আপনার অভ্যাস হয়।

কিছু আজাইরা প্যাঁচাল

প্রতিদিন ২০ মিনিট সময় নিয়ে একটা মজার ইংরেজিতে কিছু পড়বেন। আপনি দেখবেন প্রতিদিন কত পাতা পড়ছেন এবং ধীরে ধীরে গতি বাড়ছে কিনা! যদি সময় বেশি দেন তাহলে ফল পাবেন তাড়াতাড়ি! বিফলে মূল্য ফিরত! আল্লাহ হাফেজ।

রায়হান (IELTS INSTRUCTOR)


আরো পড়তে পারেনঃ