– ভাই, দেশে যাবো… বিয়ে করবো

– মারহাবা মারহাবা। মেয়ে দেখবো?

– মেয়ে ঠিক করা আছে। একটা ইনফরমেশন দিলেই হবে।

– মেয়ের ইনফরমেশন?? ঠিকানা কোথায়?

– না না… বিয়ে করতে দুইটা বিস্কিট নিতে চাইছিলাম..

– বিয়ে করতে বিস্কিট?? মেয়ের খুব পছন্দ বুঝি?

– আরে ভাই স্বর্ণের বিস্কিট! 🙂

– না করছে কে? নিয়ে আসেন! 🙂

– কতটুকু আনতে পারবো? শুল্ক-টুল্ক কত?

– বিস্কিট, পিন্ড, বার যাই বলেন, ২০০ গ্রাম পর্যন্ত আনতে পারবেন। প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রামে ৩০০০ টাকা শুল্ক। টুল্ক নাই! 🙂

– জীবনে প্রথম বিয়ে করতে যাচ্ছি.. ফ্রি বা কমসম নাই ভাই?

– পরে আরো বিয়ে করার ইচ্ছা আছে নাকি?? ফ্রি আছে.. বিস্কিট না, অলংকার ১০০ গ্রাম পর্যন্ত। তবে কোন আইটেম ১২টার বেশি আনতে পারবেন না।

– কষ্ট করে ১২টা আনতে যাবো কেন? একটাই নিয়া আসবো ১০০ গ্রামের।

– ওই রিস্ক নিয়েননা ভাই.. ১০০ গ্রামের একটাকে ১০০ গ্রামের বার হিসেবে ধরা যেতে পারে।

– এত পেঁচকি? আচ্ছা, ১০০ গ্রামের বেশি অলংকার আনা যাবে না?

– আরো ১০০ গ্রাম পর্যন্ত আনতে পারবেন, তবে অতিরিক্ত প্রতি গ্রাম অলংকারে মাত্র ১৫০০ টাকা শুল্ক।

– প্রতি গ্রামে ১৫০০ টাকা, তাও মাত্র? তাইলে বিস্কিট আনাই ভালো… রেইট কম।

– রেইট কম কিন্তু ফ্রি নাই!

– কেমনে কি! বৌয়ের ডিমান্ড যে আরো বেশি!

– বিয়ে করার আগেই.. বৌ? বিয়ের দাওয়াত দিলে বুদ্ধি দিতে পারি! 🙂

– বিয়ে, বৌভাত, জামাইভাত, পোলাপানের আকিকা সবগুলোতে দাওয়াত। বুদ্ধি দেন.. ভাই!

– প্রথমে ১০০ গ্রাম অলংকার কিনবেন, যেটা শুল্ক-ফ্রি। তারপর প্রয়োজনমতে সবোর্চ্চ ২০০ গ্রামের ভেতরে বিস্কিট/বার কিনবেন, যেটা প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রামে ৩ হাজার টাকা শুল্ক।

– আর কোন বুদ্ধি?

– ২টা বিস্কিট/বার কেনার সময় ১০০ গ্রাম ওজনের গুলো দেখে কিনবেন। ১১৭ গ্রাম ওজনের গুলো কিনে ২৩৪ গ্রাম মিলাইয়া বিপদে পইড়েন না! 🙂

– আর?

– আর নাই। দাওয়াত দিতে ভুলবেন না যেন!

– কিসের দাওয়াত?

– বিয়ের!!

– কার???

– 🙂

– ভাই টিভি কিনতে আসছি। একটু সাজেশন দেন..

– আপনার কোন ব্র্যান্ড পছন্দ আমি কেমনে বলবো

– জিগাই একটা কয় আরেকটা। এয়ারপোর্টে ট্যাক্স দিতে হয় নাকি, সেইটা ক’ন?

– ট্যাক্স দিয়েও আনতে পারেন, না দিয়েও আনতে পারেন।আপনার ইচ্ছা কোনটা?

– পাগল নাকি? অযথা ট্যাক্স দিমু ক্যান?? ট্যাক্স ছাড়া নেয়ার উপায় বলেন

– তাইলে ২৯ ইঞ্চির মধ্যে CRT টিভি কিনেন।

– কী ক’ন। ব্রিটিশ আমলের পেটুয়া টিভির চল আছে নাকি?

– তাইলে ২১ ইঞ্চির মধ্যে Plasma/LCD/TFT/LED কিনেন।

– ২১ ইঞ্চি? এই পিচ্চি টিভি নিলে বউ বাসায় ঢুকতে দেবে??

– ওহহো..সেটাওতো কথা। তো কত ইঞ্চিতে পিঠ বাঁচবে?

– যতবড় তত খুশি, মানি ডাজ নট ম্যাটার ম্যান!

– দরজার দিয়ে না ঢুকলে??

– প্রয়োজনে দরজা ভাইঙ্গা ঢুকাবো… বউ ঠান্ডা তো সব ঠান্ডা

– তাইলে ৫৩ ইঞ্চি বা তার উপরে যে কোন সাইজের ইয়া বড় একটা কিনে ফেলেন, ১ লাখ টাকা ট্যাক্স

– আল্লাগো… একটু… একটু ভাই… পানি খাইয়া লই

– মানি লিটল ম্যাটারস! ৪৭-৫২ ইঞ্চির মধ্যে একটা নেন, ট্যাক্স কম..৭০,০০০ টাকা

– ওও.. এটা কম? শালার পানিও দেখি গলায় আটকায়!

– আচ্ছা আরেকটু কমের মধ্যে নেন, ৪৩-৪৬ ইঞ্চি। ভেরি চীপ, মাত্র ৫০,০০০ টাকা ট্যাক্স।

– ইয়ে.. আগে বলেন তো, আপনার বাবা জমিদার টমিদার নাকি?

– শখের দাম লাখ টাকা। যাক, ৩৭-৪২ ইঞ্চির মধ্যে কিনেন.. ৩০,০০০ ট্যাক্স

– তা ঠিক.. টাকা পয়সা হাতের ময়লা। তো কমের মধ্যে কোনটা কেনা যায় ভাই?

– মিডিয়াম কমের মধ্যে ৩০-৩৬ ইঞ্চি, ২০,০০০ টাকা। আর একবারে কমের মধ্যে ২২-২৯ ইঞ্চি, ১৫,০০০ টাকা

– ধন্যবাদ ভাই, সময় দেয়ার জন্য.. রাখলাম।

– ক্যান ভাই? কিনবেন না?

– কিনমুইনা। এত্তে ঢাকা যাইয়া এই টাকায় স্টেডিয়াম মার্কেট থেকে নিমু বউসহ

– বউসহ মানে? টিভি কিনলে বউ ফ্রি??

– আরে ভাই বউরে সাথে নিয়ে কিনমু। যেটা ট্যাক্স দিতাম সেটা দিয়া বাচ্চাদের জন্য আরেকটা কিনমু। এরপর একটা কান্ধে আরেকটা মাথায় নিয়া বাসায়…

– গুড। আর কোন হেল্প করতে পারি?

– টিভি কেনাই বন্ধ করে দিলেন, আবার হেল্প?

– সরি ভাই, ভাবীকে সালাম দিবেন

– হ’ ভালো কইরা দিমু..। আজাইরা ফোন বিল উঠাই দিলেন…রাখেন মিয়া! 🙂

উপরের গল্পটি কাল্পনিক হলেও বিদেশ থেকে দেশে যাবার সময় অনেকের মনেই প্রশ্ন জাগে দেশে যাবার সময় কি কি নিয়ে যেতে পারব বা কতটুকু নিয়ে যেতে পারব। প্রবাসীদের সুবিধার্থে  এ ব্যাপারে লিখেছেন Magistrates, All Airports of Bangladesh।

হয়রানি এড়াতে জেনে রাখা অতীব জরুরী

সম্মানিত প্রবাসীগণের অনেকের প্রশ্নের প্রেক্ষিতে আমরা সংশ্লিষ্ট নীতিমালা পর্যালোচনা করে এবং শুল্ক কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনাক্রমে দু’টি গুরুত্ব প্রশ্নের ব্যাখ্যাসহ উত্তর দেয়ার চেষ্টা করছি…

প্রশ্ন-১: বিদেশ থেকে আগমণকালে একজন যাত্রি কী পরিমাণ স্বর্ণ আনতে পারবেন?

উত্তরঃ

ক) স্বর্ণালংকারঃ শুল্ক-কর ব্যতীত সর্বোচ্চ ১০০ গ্রাম। তবে এক প্রকারের অলংকার ১২টির বেশি হতে পারবে না। ১০০ গ্রামের অতিরিক্ত আরও ১০০ গ্রাম পর্যন্ত অলংকার HS-Code (২০১৪-১৫) অনুযায়ী গ্রাম প্রতি ১৫০০/- টাকা হারে শুল্ক-কর পরিশোধ সাপেক্ষে আনা যাবে।

ব্যাখ্যাঃ ১০০ গ্রামের অতিরিক্ত পরিমাণ অলংকার সঙ্গে থাকলে বিমানে সরবরাহকৃত “ব্যাগেজ ঘোষণা ফরম” এ সংশ্লিষ্ট কলামে অবশ্যই “হা”-তে টিক দিতে হবে। কোনভাবে এই ঘোষণায় ব্যর্থ হলে কাস্টম চেকিং এর সময় নিজ থেকে তা কর্তৃপক্ষের কাছে মৌখিকভাবে ঘোষণা করতে হবে।

ঘোষণা না করলে গোপন করার দায়ে কিংবা ঘোষণা দিয়ে ১০০+১০০=২০০ গ্রামের অতিরিক্ত পরিমাণ অলংকার আনলে সম্পূর্ণ স্বর্ণালংকারই জব্দ করে আপনাকে ডিএম (ডিটেনশন মেমো) দেয়া হবে। এই ডিএম নিয়ে ২১ দিনের মধ্যে কাস্টম হাউজে সিএন্ডএফ এজেন্টের মাধ্যমে নির্ধারিত ট্রাইবুনালে যেতে হবে এবং শুনানি শেষে ট্রাইবুনাল কর্তৃক নির্ধারিত শুল্ক-কর/জরিমানা দিয়ে তা ছাড়িয়ে আনতে হবে।

প্রতি অর্থ বছরে HS-Code-এ শুল্ক-কর পূননির্ধারিত হয়ে থাকে।

খ) স্বর্ণবার বা স্বর্ণপিন্ডঃ শুল্ক-কর পরিশোধ সাপেক্ষে সর্বোচ্চ ২০০ গ্রাম। প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রামে ৩০০০/- টাকা শুল্ক-কর পরিশোধ করতে হবে।

ব্যাখ্যাঃ অবশ্যই ঘোষণা করতে হবে। গোপন করলে কিংবা বার/পিন্ডের মোট পরিমাণ ২০০ গ্রামের উপরে হলে উপরে বর্ণিত নিয়ম প্রযোজ্য হবে। তবে এই ক্ষেত্রে সাধারণত ২৩৪ গ্রাম পর্যন্ত ডিএম নিয়মের সুযোগ দেয়া হয়। এর অতিরিক্ত হলে স্মাগলিং এর দায়ে মামলা হতে পারে।

মধ্যপ্রাচ্যে দুই ধরণের স্বর্ণবার পাওয়া যায়- ১০০ ও ১১৭ গ্রাম প্রতিটি। একাধিক (দু’টি) স্বর্ণবার ক্রয়ের ক্ষেত্রে ঝামেলা এড়াতে ১০০ গ্রাম ওজনের স্বর্ণবার কেনা উচিত।

‪#‎স্বর্ণালংকার‬ এবং ‪#‎স্বর্ণবার‬/পিন্ডের হিসেব সম্পূর্ণরূপে আলাদা। উদাহরণ স্বরূপ…আপনি ইচ্ছে করলে ১০০ গ্রাম শুল্কমুক্ত অলংকার এবং ২০০ গ্রাম শুল্কযুক্ত বার/পিন্ডসহ মোট ৩০০ গ্রাম স্বর্ণ আনতে পারেন।

প্রশ্ন-২: বিদেশ থেকে আগমণকালে একজন যাত্রি কী পরিমাণ এলকোহল জাতীয় পানীয় আনতে পারবেন?

উত্তর খুব সহজ! কেবল বিদেশী পার্সপোর্টধারী একজন যাত্রী সর্বোচ্চ এক লিটার বা দুই বোতল (প্রতি বোতল অনধিক ৫০০ মিলি) এলকোহল জাতীয় পানীয় শুল্ক-কর ব্যতীত আনতে পারবেন। অর্থাৎ কেবল এনআরবি এবং ফরেইনারের ক্ষেত্রে এই সুযোগ রয়েছে। বাংলাদেশী পাসপোর্টধারী কোন যাত্রী এলকোহল জাতীয় পানীয় আনতে পারবেননা। অন্যদিকে এনআরবি এবং ফরেইনারদের ক্ষেত্রে এক লিটারের অতিরিক্ত পরিমাণ শুল্ক-কর পরিশোধ সাপেক্ষে আনারও সুযোগ নেই।

অন্যান্য প্রশ্নের উত্তরের জন্য বাংলাদেশ ব্যাগেজ রুলস-২০১২ এর আপডেটেড ভার্সনের লিংক দেয়া হল।

এছাড়া পড়তে পারেনঃ


ব্যাগেজ রুলস এর পিডিএফ (নিচে লোড হবে। তবে এখানে দেখবেন সবসময়, সর্বশেষ আপডেট এর জন্য!)

প্রশ্নোত্তরঃ

Saber AL Mamun নেপালে আমার একটা ছুড়ি পছন্দ হয়েছিল। কিন্তু ভয়ে আনিনি। বিদেশ থেকে কি ছুড়ি চাকু আনা বৈধ? জানালে উপকৃত হব।

Magistrates, All Airports of Bangladesh Not only knife u can carry also legal fire arms but maintaining fixed proceedure and special booking.

Akash Akand আমার মতে যারা কেজি কেজি শোনা চোরাচালান করে তারা সঠিক হিসাবে শুল্ক দিয়ে দিলেই তো আর সোনা জব্দ করতে পারবেনা শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ।

Magistrates, All Airports of Bangladesh হা হা..কেজি কেজি সোনা আমদানিতে স্পেশাল কনসাইনমেন্ট লাগে যেখানে অর্থমন্ত্রণালয়, এনবিআর সহ নানান কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিয়ে জুয়েলার্স লাইসেন্স ধারী কেউ করতে পারে। জানামতে, এ পর্যন্ত আপন জুয়েলার্স কয়েকটি কনসাইনমেন্টে সোনা আমদানি করেছে। প্রশ্ন করতে পারেন, তাহলে বাকী জুয়েলার্সগুলো চলে কীভাবে? উত্তর নাই!

Magistrates, All Airports of Bangladesh যে কোন প্রকার শুল্ক-কর কাস্টমসের নির্ধারিত ফরমে অবশ্যই #ব্যাংকে জমা দিবেন।