এই সিরিজটি আম জনতার জন্যে প্রযোজ্য না…অনেক চিন্তা করে তৈরী করা হয়েছে শুধুমাত্র প্রবাসী ছাত্রদের জন্যে। প্রতিটি খাবার হবে সস্তা, সহজ, কম সময়ে চটপট রান্না করার উপযোগী এবং সর্বোপরি খাওয়ার যোগ্য…

3

পোলাপাইন আজকাল জ্বর বাধায়ে বাসার কথা, মায়ের কথা মনে করে আর সেই সাথে চিকেন সূপ! মা তো আছেন হাজার মাইল দুরে তবে বন্ধু মহল থেকে কেউ বেচারার জন্যে বানাতে পারেন চিকেন সূপ….সস্তা তবে একটু সময় লাগে বানাতে। কি খেতে ইচ্ছা করছে? এমনিতেও বানিয়ে খাওয়া যাবে, রোগী হওয়া লাগবে না।

সব সুপার মার্কেটেই souppen হুনেন বলে একটা আস্ত ছোট মুরগি ডিপ ফ্রীজে থাকে যা কিনা দামেও খুব সস্তা (দেড় থেকে দুই ইউরো বা একটু বেশি) এই মুরগি দেশী মুরগির স্বাদ কিন্তু সাধারন রান্না করতে গেলে খবর আছে এমনি শক্ত আর কেটে টুকরা করাও বেশ কঠিন। এই মুরগিই লাগবে পারফেক্ট সুপের জন্যে। আর মসলা বলতে লবন, গোল মরিচ, পেয়াজ এবং রসুন। পেয়াজ আর রসুন না থাকলেও কোন সমস্যা নেই।

3

প্রণালী: মুরগি পানি দিয়ে ধুয়ে সোজা একটি বড় পাতিলে পানি দিয়ে ঢেকে মধ্যম আচে কমপক্ষে ২ ঘন্টা সেদ্ধ করতে হবে। পানি শুকিয়ে গেলে আবার পানি দিয়ে দিলেই হবে তাতে করে  হাড় এবং মাংস আলাদা হওয়া শুরু করবে। পানিটা হলো সুপের আসল স্বাদ তাই ভুলে আবার ফেলে দিলে চলবে না। মুরিগি তুলে একটা প্লেটে নিয়ে মাংস গুলো হাড় থেকে আলাদা করে ফেলতে হবে এবং হাড় ছাড়া বাকি সব কিছু কুচি কুচি করে ওই পানিতে ঢেলে দিতে হবে। এর পরের অংশ খুবই সহজ…একটি পেয়াজ কুচি করে আর রসুন যদি থাকে তাও কুচি করে দিয়ে দিতে হবে আর সাথে লবন এবং গোলমরিচ। তারপরে ২০-৩০ মিনিট ফুটালেই সূপ রেডি।
চাইলে একটা বা দুইটা ডিম বাটিতে ভালো করে ফেটে ওই সূপ এ দিয়ে দেয়া যাবে এবং ফোটা মাত্র চামচ দিয়ে নেড়ে দিতে হবে। দুই-একটা কাঁচা মরিচও কেটে দিয়ে দেয়া যায় ভালই লাগে। গাজর, মটরসুটি, ভুট্টাও দেয়া যায় চাইলে। একটা সুবিধা…অনেক পানি দিলেও সূপ মজারই হয়। একটি মুরগি সাধারনত দুই বা আড়াই লিটার পরিমান সুপের জন্যে প্রযোজ্য।

স্বাদ-আহ্লাদ আর খানাদানা ৮: গরিবী হাল-নবাবি চাল
স্বাদ-আহ্লাদ আর খানাদানা ৩: ভেতো বাঙালীর ভাতের খবর
স্বাদ-আহ্লাদ আর খানাদানা ২: মুরগি