“বাবা উঠ, নাস্তা কর” “ভাইয়া ভাতটা খেয়ে অন্তত বের হও” “মামা আজকে বাজার নাই, টেকা দিয়া যান নইলে কিন্তু আজকে ম্যাচে রান্না হইবো না” এই কথা গুলোর সাথে আমরা খুব পরিচিত ছিলাম। এখন আর শুনতে পাইনা। জীবনের তাগিদে আপন মুখগুলো ছেঁড়ে পড়ে আছি আমরা প্রবাসে । লক্ষ্য শুধু একটাই যেন ওই আপন মুখগুলোতে একটু হাঁসি দেখতে পাই। এখন আর কেউ ঘুম থেকে উঠিয়ে নাস্তা দেয় না, বোনেরাও জামাকাপড় বিছানাপত্র গুছিয়ে রাখেনা, বুয়ার রান্না করা তরকারিতে হলুদ-মরিচের গুড়া ভেসে থাকে না। সকাল ঘুম থেকে উঠা হতে শুরু করে আবার ঘুম যাওয়া পর্যন্ত যাবতীয় সকল কাজঃ  ভার্সিটি ক্লাস, জব, পড়াশুনা, রান্না-বান্না, পরিবারের সবার সাথে যোগাযোগ করা, গার্লফ্রেন্ড এর মন রক্ষা করা সবকিছুই আপনাকেই  করতে হয়। কেউ কেউ তো রাতের বেলা গুমাতেও পারি না, নাইট শিপ্টে কাজ করি বলে। ক্ষুদার জ্বালায় যখন চোখ বন্ধ হয়ে আসে তখন চুলায় আগুন জ্বালানো অথবা কেবাব-ডোনার ছাড়া আর কোন উপায় থাকে না। এই বাস্তবতা মেনে নিয়েই কাটছে আমাদের প্রবাস জীবন।

আর রান্নাঘর, মশলামাশলির নাম, রান্নার প্রক্রিয়া , কাটাকুটা এগুলো আবার কি ??? জানিতো শুধু তেল গরম করে তার মধ্যে ডিম ছেড়ে দেওয়া , এছাড়াতো আর কিছু জানি না !!! তাই আপনাদের কথাই চিন্তা করে আমার রান্নার অবিজ্ঞতা ও রেসিপি আপনাদের সাথে নিয়মিত শেয়ার করব, যদি তাতে আপনাদের কিছুটা  উপকারে আসে । চলুন আজকে শিখে নেই কিভাবে মজাদার  সুস্বাদুকর ব্রোকলি ভাজি করবেন । ব্রোকলি জার্মানদের খুব প্রিয় খাবার ।

রেসিপিঃ সুস্বাদুকর ব্রোকলি ভাজি ।

সৌজন্য : মারুফ’স কিচেন

পরিমান ও উপকরনঃ

– ব্রোকলি ১ কেজি

– পাপরিকা ৩ কালারের  (বড় কুচি, প্রতিটা থেকে হাফ হাফ করে )
– পেঁয়াজ কুচি, মাঝারি ৩টা

– রসুন কুচি,  মাঝারি ১টা
– কাঁচা মরিচ, কয়েকটা, ঝাল বুঝে
– মরিচ গুড়া, দুই চিমটি (ঝাল বুঝে)

– লবন, স্বাদ মত

– দুধ আধা লিটার
– বাটার বা ঘি , তেল, কয়েক টেবিল চামচ, কম তেলেই রান্না করতে পারেন, ননষ্টিকি কড়াইতে

মুল রান্নাঃ
তেল  গরম করে সামান্য লবন যোগে প্রথমে পেঁয়াজ, রসুন  কুঁচি দিন। এবং পরে কয়েকটা কাঁচা মরিচ ফালি করে দিন। বাটার বা ঘি ছেঁড়ে দিন । পেঁয়াজ কুঁচি হলদে হয়ে এলে এবার মরিচ গুড়া দিন। একটু পরে পাপরিকা কুচি দিন। মিনিট ৫ পর আগে থেকে কেটে রাখা  ব্রোকলি গুলো দিন। ভালো করে নাড়িয়ে দিন।  ঢাকনা দিয়ে সামান্য আঁচে মিনিট  ৫ রাখুন। এইবার ২৫০ গ্রাম দুধ দিয়ে নাড়িয়ে ঢেকে রাখুন ৫ মিনিট , পরে আবার বাকি দুধ দিয়ে দিন। ব্রোকলি একটু নরম হয়ে আসলে আগুন কমিয়ে দিয়ে আরো ৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। আগুন নিবিয়ে দিন। এবার পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত। আহ!…  দারুন স্বাদ !

সবাইকে শুভেচ্ছা। আসছি আরো আরো নুতন নুতন রান্না নিয়ে, আমার রান্না একদম পিউর দেশী।

https://www.facebook.com/%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A7%81%E0%A6%AB%E0%A6%B8-%E0%A6%95%E0%A6%BF%E0%A6%9A%E0%A7%87%E0%A6%A8-Marufs-Kitchen-544702512374008/