আমার পরিচিত একজন মাস্টার্স (ইংরেজী) প্রোগ্রামে অফার লেটার পেয়েছিল কোন IELTS/TOFEL ছাড়াই। কারণ তার ব্যাচেলর এর শিক্ষার মাধ্যম ছিল English। আর সেটা দেখেই ভার্সিটি তাকে অফার লেটার পাঠিয়েছিল। কারণ কোর্সটিতে ভর্তির জন্য এটাই যথেষ্ট ছিল ভর্তির requirement অনুযায়ী। কিন্তু ঢাকাস্ত জার্মান এমব্যাসি তার ভিসা এপ্লিকেশন বাতিল করে দেয়। এমব্যাসি তার চিঠিতে লিখেছিল তার ভাষার উপর জ্ঞান মাস্টার্স প্রোগ্রামটির জন্য যথেষ্ট নয়।  আমি দেশের কয়েকজন ইমিগ্রেশন লয়িয়ার এর সাথে এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করার ব্যাপারে কথা বলেছিলাম যারা এসব ব্যাপারে কাজ করে থাকে। কথা বলে বুঝলাম তারা অন্য এম্বেসির ক্ষেত্রে আপিল করলেও কেউই কনফিডেন্ট না জার্মান এম্বেসির রিফিউজড ভিসা আপিলের ব্যাপারে। কারন কেউই নাকি সফল হয়নি। যদিও আমাদের ক্ষেত্রে স্ট্রং যুক্তি ছিল এম্বেসির এই কাবজাবকে ডিফেন্ড করার।

পরে সিদ্ধান্ত নিলাম টাকা যাক কিন্তু খেলা সুন্দর হোক। এর শেষ দেখেই ছাড়ব। জার্মানির উকিল দিয়ে পরে আপিল করালাম আর এক মাসের মধ্যেই জিতলাম। উকিলকে প্রায় ৪৫০ ইউরো দিতে হয়েছিল। যদিও ডিফেন্ড করার যাবতীয় তথ্য, পেপার আমারাই দিয়েছিলাম উকিলকে। সে শুধু তার ওকালতির ভাষায় জিনিসগুলো লিখেছে আপিল লেটারে। উকিল নিজেই মেইল করেছিল তার মক্কেলের পক্ষ থেকে।

এখন আপনি যদি কনফিডেন্ট থাকেন আপনার ব্যাপারে আমি বলব এগিয়ে যান। দেশে কোন কনফিডেন্ট (নট বাটপার) উকিল খুঁজে পেলে তো ভালই, সস্তায় করতে পারবেন। অবশ্য বাটপার উকিল হলেও সমস্যা নাই কারন সে আপনাকে বেশি ঘুরাতে পারবে না টাকা খাওয়ার ধান্দায়। কারণ আপিল এক মাসের মধ্যেই করতে হয় আর রেসাল্টও দ্রুত পেয়ে যাবেন। আর তা না হলে জার্মানিতে যদি আপনার পরিচিত কেউ থাকে তাদের মাধ্যমে এখানকার উকিল ধরে করলে আরও ভালো।

আপনি যেখান থেকেই যে উকিল দিয়েই আপিল করেন না কেন আপনাকে ঢাকাস্থ জার্মান এমব্যাসিতেই আপিল করতে হবে।


এখন আপিল সংক্রান্ত ব্যাপারে খুব সংক্ষেপে বলি। তিনভাবে আপনি আপিল করতে পারবেন।

১। আপনি নিজে একাই নিজের ভিসা বাতিল সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে লিখিত আপিল (remonstrance) করতে পারবেন সিদ্ধান্ত শুনানির এক মাসের মধ্যে। প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট, সিগনেচার সহ ডাকযোগে ঢাকাস্থ জার্মান এমব্যাসিতে পাঠানোর সাথে সাথে [email protected], [email protected] মেইল করে দিতে পারেন। চিঠির ভাষা হতে হবে ইংরেজী/জার্মান।

২। আপনার উকিল (দেশি/জার্মান) আপনার পক্ষ হয়ে remonstrate করতে পারবে। সেক্ষেত্রে আপনি যে তাকে power of attorney দিয়েছেন তার একটা প্রমানপত্র সাথে দিতে হবে। আর উকিলই আপনার পক্ষ হয়ে সব দরকারি ডকুমেন্ট সহ ডাকযোগে পাঠাবে/ মেইল করবে।

উকিল দ্বারা আপিলকৃত চিঠির একটা ধরণ উধাহরন হিসেবে দেয়া হল। চিঠির ভাষা ডয়েচে তাই দয়া করে নিজ দায়িত্বে অনুবাদ করে নিবেন।

৩। remonstration করার পরও যদি আবার রিজেক্ট হন, সিদ্ধান্ত শুনানির পরবর্তী এক মাসের মধ্যে আপনি Administrative Court of Berlin (Kirchstrasse 7, 10557 Berlin) এ পুন:রায় লিখিতভাবে appeal করতে পারবেন। এটা অনেক লম্বা প্রসেস। কারণ আপনাকে কোর্টের ডেইটের জন্য অপেক্ষা করতে হবে। ততদিনে আপনার একটা সেমিস্টার চলে যেতে পারে। (not recommended)

যদিও এটা অন্য দেশে অবস্থিত জার্মান এমব্যাসিতে আপিল করার সিস্টেম; এটাকেও স্ট্যান্ডার্ড হিসেবে ধরতে পারেন।
http://goo.gl/OSpJUO

আর একটা কথা। জার্মানির ব্যাপারে “বলে বেতার কেন্দ্রের” মত মানুষের কথার উপর ১০০% বিলিভ করে বসে থাকবেন না। মানুষ থেকে তথ্য নিয়ে সম্যক ধারণা নিবেন। নেগটিভ হলেও আপনি যদি মনে করেন আপনি আপনার যায়গায় সঠিক তাহলে অন্তত একবার হলেও ট্রাই করবেন। এটা শুধু আপিলের ক্ষেত্রে না সব ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।

সূত্রঃ http://www.auswaertiges-amt.de/EN/Infoservice/FAQ/VisumFuerD/10-Ablehnung.html