written by, রাফিউল সাব্বির

যারা IELTS দিতে চান, যারা দেয়ার চিন্তা-ভাবনা করতেসেন, যারা দিতে ভয় পান এবং যারা দিতে চান না তাদের সবার জন্য আজকের এই ‘আসেন ভাই কাশের থুক্কু IELTS’র বড়ি’  

IELTS হলো International English Language Testing System মানে এই পরীক্ষাতে আপনাকে নানাভাবে গুতায়ে-গাতায়ে টেস্ট করবে যে আপনে ইংরেজী ভাষাটা কেমন পারেন(গেবনডা গুতা খাইতে খাইতেই গেলো   )

যাই হউক, IELTS পরীক্ষার মূলত চারটা অংশ থাকে – লিসেনিং, রিডিং, রাইটিং এবং স্পিকিং। এরমধ্যে প্রথম তিনটার পরীক্ষা একইসাথে হয়, স্পিকিংয়ের পরীক্ষাটা হয় ঐ পরীক্ষার আগে অথবা পরে(পরীক্ষার্থীকে ম্যাসেজ দিয়ে জানায়ে দেয়)।

লিসেনিংঃ আপনে যদি বয়রা না হন মানে কানে শুনেন তাইলেই এই পরীক্ষা আপনার জন্য। এইখানকার ঘটনা হলো প্যান প্যান কইরা একজন কথা বলবে, সেইটা শুইনা শুইনা খাতায় আপনারে শূন্যস্থান পূরণ করতে হবে যে ওয়ার্ডটা বলসে ঐটা দিয়ে। লিসেনিংয়ের জন্য সাজেশান হলো মুভি(ইংরেজী মুভি, কারিনা-ক্যাট্রিনা দেখলে কাম হইতো না!) দেখা এবং কিছু শুনতে শুনতে বোঝার ট্রাই করা যে যা বলছে সেটা যদি একটু কম/বেশি স্পিডে বলে তাহলে আপনি ধরতে পারেন নাকি। ক্যামব্রিজের ৯টা বইয়ের একটা সেট আছে IELTS’র জন্য, ঐটাতে প্রতি বইয়ে ৩টা করে ২৭টা লিসেনিং টেস্ট পাবেন। গূড ইনাফ ফর আ এ্যাভারেজ ইংলিশ লিসেনার।

রিডিংঃ লেয়াপড়া, খালি লেয়াপড়া। পড়তে হবে, পড়তে পড়তে চেয়ার-টেবিল থেকে পড়ে যাইতে হবে। এই সেকশনে কোনো শর্টকাট নাই। পড়বেন আর এ্যান্সার করবেন, ভুল হবে, আবার কয়েকদিন পরে সেইম জিনিস পড়ে এ্যান্সার করবেন। এইভাবেই হবে। টাইম দিতে হবে এই সেকশানে সবচেয়ে বেশি। নো উপায়  

রাইটিংঃ হুমায়ূন আহমেদ ক্যাটাগরি হইলে তো সমস্যা নাই, না হইলেও প্রবলেম নাই। রাইটিংয়ে দুইটা প্রশ্ন থাকে ১) একটা গ্রাফ/স্ট্যাট দেখে সেটাকে সামারাইজ করা, ২) কোনো একটা বিষয়ে আপনার মতামত দেয়া এবং সেটা এলাবোরেট করা। এই টেস্টটায় একই সাথে আপনার কোনো বিষয়কে সামারাইজ করার এবং এলাবোরেট করার ক্যাপাবিলিটি দেখা হয় যথাক্রমে ১ এবং ২ নাম্বার প্রশ্নে। ক্যামব্রিজের বইয়ে রাইটিং টেস্ট আছে, দেখে লিখতে থাকেন। ভুল হউক, সমস্যা নাই, যা মনে আসে লেখেন, ১ নাম্বারের জন্য অল্প কথায় গুছায়ে আর ২ নাম্বারের জন্য বিশদ করে ব্যাখাসহ; তারপরে উত্তরের সাথে নিজেই কমপেয়ার করে দেখেন আপনার লেখাটার কোয়ালিটি। লিখতে লিখতেই লেখা ঠিক হবে।

স্পিকিংঃ যেটা হুদাহুদিই সারাদিন করেন এবং কইরা আশেপাশের সবাইরে বিরক্ত করেন। এইবার সেইটা করতে হবে ইংরেজীতে। স্পিকিংয়ের জন্যও ইংরেজী মুভি দেখতে পারেন, তবে সবচেয়ে ভালো হলো নিজের সাথে নিজেই ইংরেজীতে প্রশ্ন এবং উত্তর দেয়া। আপনিই প্রশ্ন করবেন আপনাকে, আপনিই উত্তর দিবেন। প্রথম সপ্তাহে যুতমতো হবে না, পরের সপ্তাহেও হবে না, তারপরেও হবে না। এইভাবে হতে হতে মাসখানেক/দেড়েক পরে ঠিকই হবে। না হয়ে যাবে কই।

স্পিকিংকে সবাই ভয় পায় IELTSএ, আসলে আমাদের সমস্যা হলো আমরা প্রশ্ন ঠিকমতো বুঝতে পারি না ইংরেজীতে। এইজন্য স্পিকিংয়ের জন্য সবচেয়ে বেশি দরকার ভালো লিসেনিং ক্যাপাবিলিটি, প্রশ্ন শুনে কি জানতে চাইসে সেটা বুঝতে পারা।

*****পাঠ্যবই/সহায়ক হিসাবে ক্যামব্রিজের ৯টা বইয়ের সেট কিনতে পারেন(অবশ্যই সিডিসহ), বেশি কনফিউজড থাকলে ক্রাশ কোর্স করতে পারেন কোথাও এবং সময় পাইলে অতি অবশ্যই ৩/৪টা মক টেস্ট দিতে পারেন। একটা জিনিস মনে রাখবেন, আপনার মতোই হাজার হাজার মানুষ এই পরীক্ষা দেয় এবং ভালো করে। তারা পারলে আপনি না কেন?

কোনো স্পেসিফিক প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্টে কইরেন, উত্তর দিবো। এইখানে বহু IELTS দেয়া পাবলিক আছে, তারাও উত্তর দিতে পারবে। শুভকামনা।