অনাদিকাল হতে আজকের পৃথিবী পর্যন্ত পুরুষের পাশাপাশি নারীরা সভ্যতা সৃষ্টিতে ভূমিকা রেখে আসছে। তবে চিরকালই নারী পুরুষের সম্পর্ক মহিমান্বিত থাকেনি। কদাচিৎ তা কদর্যরূপ ধারণ করেছে। এখনো নারীরা সমাজে নানারূপে নির্যাতিত। এই নির্যাতন আর নিষ্পেষণের মূল অনুঘটক ধর্ম। এই ধর্মের নাম নিয়ে পৃথিবীতে যত নারীর প্রতি জুলুম করা হয়েছে তার তুলনা নেই। সভ্য জগতে তাই আলাদা করে নারী দিবস পালন করতে হয়। বাংলাদেশেও এখন অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে দিবসটি পালিত হয়। 

জার্মান প্রবাসে মার্চ মাসের ম্যাগাজিন ডাউনলোড/দেখতে ক্লিক করুন
(প্রায় ১২.৭ মেগাবাইট)

এই নারী দিবসকে সামনে রেখে শুধুমাত্র নারীদের লেখা নিয়েই আমরা ম্যাগাজিনটি সাজাতে চেয়েছি। সবার সাড়া দেখে আমরা মুগ্ধ। বিদেশে আসতে হলে একটা বাঙ্গালি মেয়েকে কতটা সংগ্রামের মধ্য দিয়ে যেতে হয় অনেকেই তা লিখেছেন। এরপর পড়ালেখা শেষে কর্মজীবনে প্রবেশ। এই পথ কখনো কুসুমাস্তীর্ণ নয়। এবারের সংখ্যায় সবার লেখাতেই প্রায় তাঁদের নিজস্ব সংগ্রামের কাহিনি লেখা হলেও, এ যেন প্রতিটি নারীরই সংগ্রামগাথা। লেখার পাশাপাশি ফ্রেন্ডস অব বাংলাদেশ সম্মাননায় ভূষিত বারবারা দাশগুপ্তের একটি সাক্ষাৎকার রয়েছে। 

পৃথিবীর সকল সংগ্রামী নারীর প্রতি উৎসর্গীকৃত এই ম্যাগাজিনটি আপনাদের ভাল লাগবে এই আমাদের প্রত্যাশা।    

ধন্যবাদান্তে
টিম জার্মান প্রবাসে

শনিবার
০৯ মার্চ ২০১৯
২৫ ফাল্গুন ১৪২৫

অনিচ্ছাকৃত বানানভুল ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখার আবেদন রইল।

চাইলে আপনিও লেখা/ছবি পাঠাতে পারেন!

পরবর্তী সংখ্যার ম্যাগাজিনের থিম: “বৈশাখী আনন্দ”

বাঙ্গালির বারো মাসে তেরো পার্বণ। বাঙ্গালির সব ছাড়া চলে, কিন্তু যেকোন ছুঁতোয় উৎসব না করে থাকার মত বোকা বাঙ্গালি নয়। আমাদের সব উৎসব সব আনন্দ ধর্মকেন্দ্রিক। গোত্রভুক্ত এসব পালা পার্বণে সব ধর্মের সব মানুষ একত্রে অংশ নিতে পারে না বা নেওয়ার সুযোগ কম। অন্যদিকে সার্বজনীনতা বিবেচনায় বৈশাখ হল বাঙ্গালি একমাত্র উৎসব যেখানে সব ধর্মের সব গোত্রের মানুষ একসাথে আনন্দে মেতে উঠে। 

আমরা বিদেশে থাকলেও এই আনন্দ উপভোগের কমতি নেই আমাদেরও। বিদেশে যারা আছি, যে শহরেই আছি, গুটিকয় বাঙ্গালি মিলে সেখানেই আমরা বৈশাখ পালন করে থাকি। জার্মানিসহ বিভিন্ন দেশে পালিত এই বৈশাখ আয়োজনের কথা আমাদের লিখে জানান, সাথে পাঠান রঙ্গিন সব ছবি। এছাড়াও সংস্কৃতি সংশ্লিষ্ট যেকোন মতামত, বিদেশ এসে কালচারাল শক ইত্যাদি নিয়ে লিখতে পারেন আসছে এপ্রিল সংখ্যার ম্যাগাজিনে। 

ডেডলাইনঃ ১০ এপ্রিল ২০১৯

লেখা পাঠানঃ [email protected]

অথবা পেজের ইনবক্সে পাঠানঃ www.facebook.com/pages/জার্মান-প্রবাসে/212610425614429

ছবির পাঠানোর জন্য বিস্তারিতঃ http://goo.gl/90IVlk

লেখার সাথে নাম ঠিকানা পেশা আর একটি ছবি অবশ্যই পাঠাবেন।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ শুধু জার্মানি বা বাংলাদেশ থেকেই নয়, যেকোন দেশের প্রবাসী বাংলাদেশিদের সাদর আমন্ত্রণ আমাদের ম্যাগাজিনে! তাই আমাদের ম্যাগাজিনে লিখতে হলে আপনাকে বাংলাদেশ বা জার্মানিতেই থাকতে হবে অথবা আমাদের ধরিয়ে দেওয়া টপিকেই লিখবে হবে এমন কোন কথা নেই! যে কেউ যেকোন দেশ থেকে যেকোন টপিকে লেখা পাঠাতে পারেন।