KAAD স্কলারশিপটি ক্যাথলিক চার্চ থেকে প্রদান করা হয়…প্রতিবছর বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের জন্যে এটি একটি বিশেষ সুযোগ…মনে রাখতে হবে এর সাথে ভাষা শিখতে হবে যা ৬ মাস kaad থেকেই ব্যবস্থা নেয়া হবে…যদিও ধার্মিক সংস্থা তবে যে কেউ requirement fullfill করতে পারলে apply করতে পারবেন…বিস্তারিত পাবেন  KAAD লিংক এ

তবে কিছু কথা মাথায় রাখতে হবে এপ্লাই করতে চাইলে…

১. দুই বছর জব এক্সপেরিয়েন্স থাকতেই হবে

২. বাংলাদেশী ক্যাথলিক চার্চ অর্গানাইজেশন থেকে রেকমেন্ডেশন লেটার নিতেই হবে

৩. আপনাকে ডিগ্রী শেষ করার পরে বাংলাদেশে কমপক্ষে দুইবছর কাজ করতে হবে

৪. ক্যাথলিক এবং সংখ্যালঘু গোষ্ঠিরা অগ্রাধিকার পাবেন

৫. বাদ বাকি জেনারেল যা কিছু অন্যান্য আবেদন এর  মতনই… যেমন ielts, Letter of Motivation/Statement of purpose, outstading academic profile, reference letters, good university admission offer (in some cases) etc.

KAAD এই বৃত্তিটি দেশের উন্নয়ন এবং তাদের মানবতা বিষয়ক মূল্যবোধকে উদ্বুদ্ধ করার জন্যে প্রদান করে থাকে। আজকাল কার ভ্রান্ত ধারনার কারণে একটি তথ্য খোলসা করে বলা ভালো…আপনাকে কেউ ধর্মান্তরিত করছে না এবং আপনার ধর্মীয় মূল্যবোধকেও আঘাত দেয়া হবে না। আপনাকে বৃত্তি প্রদান করা হবে যাতে আপনি প্রকৃত অর্থে দেশের যোগ্য সন্তান হয়ে দেশের জন্যে কাজ করেন। আপনার মনমানসিকতা যদি উদার হয়, ভালো ছাত্র হয়ে থাকেন এবং ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে মানুষকে মানুষ হিসেবে তুল্য করেন তাহলে চেষ্টা করে দেখতে পারেন…রইলো শুভকামনা।