ভালোবাসার জ্ঞান আসলে আমার খুব কম। শুধু এইটুকুই বুঝি ভালবাসা আসলে নীল আকাশের মতো বিশাল, নীল সমুদ্রের মত গভীর । সমুদ্রের কিনারে উছলে পরা ঢেউ এর মত উত্তাল। আকাশের মেঘের মত মনের একপ্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ঘুরে বেড়ানো ঘুড়ি! ঠিক এই দেশে ঝলমলে রোদে হঠাৎ চলে আসা শীতের তুষারপাত, কখন কার মনে উকি দেয়া অজানা বেদনা। রবি ঠাকুরের শেষের কবিতার অমিতের লাবন্য কে নয়  মিস কেতকি মিত্র কে বিয়ে করা! যাইহোক এগুলোর কোনটাই আমার নিজের রচনা করা নয়। সবটাই রবি ঠাকুর আর  শরৎ বাবুর থেকে শেখা। জীবনের শত ব্যস্ততার মাঝে প্রেমের অভিজ্ঞতা খুবই কম ।  কিন্তু এতদিনে ভালোবাসার সত্যকার অর্থটা হয়ত একটু একটু বুঝতে শিখেছি। আমার ভাষায় বলতে গেলে এখন ভালবাসা হল ৭০৬৮ কি মি দূরে থেকেও মায়ের নিঃস্বার্থ মমতা। গভীর রাতে ভাঙ্গা ঘুমে  হঠাৎ দেখা আকাশের তারা ও নক্ষত্রের মাঝে লুকিয়ে থাকা হারিয়ে যাওয়া আপনজন কে খুঁজে নিঃশব্দ চোখের জল ফেলা।  ৬৮০০ কি মি দূরে থাকা ভেঙ্গে যাওয়া সম্পরকের সেই প্রিয় মানুষটির জন্য মনের অজান্তে প্রার্থনায় শুভ কামনা। ৬০০ কি মি দুরে থাকা ভাল লাগার মানুষটিকে কাছে পাবার প্রতি নিয়ত আকাঙ্ক্ষা। মাঝে মধ্যে আপন মনে ভাবি কেউ কি ঠিক এভাবে আমার জন্য প্রার্থনা করছে ঠিক যেমনি আমি রেখেছি তাকে আমার প্রার্থনায়!  

ব্যাপারগুলো খুব কাল্পনিক লাগছে তাই না? আসুন একটু বাস্তব ভালোবাসার কথায় আসি। আমার পরিচিত এক জন আছে । যার জীবনের বাস্তবতা আমাকে ভালোবাসার কথা শিখিয়েছে । নাম বলতে চাই না , কৈশোর থেকে একটি মেয়েকেই মনে প্রানে ভালবেসেছিল , কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে সেই মেয়ের বিয়ে হয়ে যায় অন্য কারো সাথে। কিন্তু মেয়েটিকে ভালোবাসা বন্ধ করে দেয় নি বা বলা যায় কেউ কাউকে ভালোবাসা বন্ধ করে দেয় নি। প্রকৃত ভালোবাসার কাছে হয়ত ভাগ্যের লিখনটা ও অনেক সময় হার মানে। বিধাতা গল্পটা অন্যরকম লিখে রেখেছিলেন উপর থেকে। মেয়েটির কোন কারনে সংসার ভেঙ্গে যায়। প্রায় ৭ বছর পর দুইজন আবার সেই ভালোবাসার টানে এক হয়েছে। প্রকৃত ভালোবাসা আসলে এমনি আপনি যাই করেন না কেন , সব কিছুর পর ও মেনে নেবে আপনাকে । আগে ভাবতাম ভালোবাসা বুঝি শুধু রবি ঠাকুরের গান-কবিতায় বা শরৎ বাবুর উপন্যাসে সীমাবদ্ধ কিন্তু এই ঘটনাটা নিজের চোখে না দেখলে হয়ত ধারনাটা কখনো বদলাতই না!

যাইহোক এত কথা বলার একটাই উদ্দেশ্য, ভালোবাসার জন্য বিশেষ কোন দিন, তারিখ বা সময়ের প্রয়োজন হয় না ।  নিঃস্বার্থ ভাবে দূর থেকে নিজের ভালবাসার ইন রিটার্নে অন্যের ভালোবাসা এক্সপেক্ট  না করে , পৃথিবীর যে  কোন প্রান্তে থাকা সেই ভালোবাসার মানুষ গুলোরকে প্রতি মুহূর্তে ভালোবাসা যায়।  প্রার্থনায়, একাগ্রতায় ভালোবাসার মানুষদের জন্য যে কোন সময়ই মঙ্গল কামনা করা যায়।  আকাশের নক্ষত্রে হারিয়ে যাওয়া মানুষটার জন্য লুকিয়ে কাঁদার জন্য বিশেষ কোন ক্ষণ বা মুহূর্তের প্রয়োজন হয় না।  চাইলেই হয়ত ভালোবাসা যায় কিন্তু ভালোবাসার মানুশটিকে ভুলে যাওয়া পারতপক্ষে খুব কষ্টের! আর হ্যা ভালোবাসার মানুষটি কে ভালোবাসি বলতে ভুলবেন না ।  বেঁচে থাকুক পৃথিবীর সব ভালোবাসারা , দূর দূরান্তে!