প্রথমে ক্ষমা চেয়ে নিই, গত এক বছরে আসলে উচ্চশিক্ষার সচেতনতা নিয়ে খুব একটা একটিভ ছিলাম না , কারন নিজেই উচ্চশিক্ষার প্যারায় পীড়িত ছিলাম । যা হোক এখন কিছুটা ফ্রী, তাই চেষ্টা করছি কিছু ভুল পরিশোধন করার……

আমি আজ থেকে উচ্চশিক্ষা অষ্ট্রেলিয়া পব নিয়ে লেখা শুরু করলাম , আজকের পর্ব : পর্ব -১ : Common Mistakes in Higher study

১. আমার দ্বারা হবে না, cgpa কম

তর্জমা : উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে আত্নবিশ্বাস এবং dedication বড় ব্যাপার, আপনার মন যদি চায় আমি জব করবো দুই বছর তারপর higher study করবো, তাইলে ল্যাঠা চুকছে, খুব কম মানুষ পারছে জব লাইফ থেকে higher study তে ঢুকতে। (Except Teaching Profession) । এবার আসি মন থেকে অনুপ্রেরণা । আমার সিজিপিএ কম আপনি মন থেকে চান সরকারি জব করবো , বিসিএস দিবো তাইলে ভাই হায়ার স্টাডি লাইনে আসার দরকার নাই। হায়ার স্টাডি তারাই আসতে পারে যারা মন থেকে চায়। কারনটা পথটা সহজ ভাবলে সহজ কঠিন ভাবলে কঠিন । আর সিজিপিএ কত দরকার তার একটা গল্প বলি, আমার পাশের ল্যাবমেট ছেলেটি পাকিস্তানের । তার সিজিপিএ ২.৯৯। সে কিন্তুু লেগে ছিল এবং তার ছিল কিছু পাবলিকেশন । তাই কম সিজিপিএ এর পাবলিকরা কিছু পাবলিকেশন নিয়ে যুদ্ধে নামেন , অজুহাত দেখিয়ে রণে ভঙ্গ দিয়েন না। আরেকটি উদাহরণ
ঢাকার মেসে ছিল আমার রুমমেট নীলাদ্রি । কুয়েটের ছেলে । সিজিপিএ ২.৯৬ । কোরিয়াতে আছে । প্রতিসপ্তাহে পোজমার্কা পিক আপলোড করে আর মাসে ১০০০ ডলার ফান্ড পায়। আশা করি আপনার সিজিপিএ দুজনের চেয়ে অনেক বেশি।

২. GRE বিভ্রাট

তর্জমা : ভার্সিটির তৃতীয় বর্ষ থেকে শুনে আসলাম GRE দাও, GRE দাও। সবজায়গায় GRE লাগে কিনছিলাম Barron. Manhatton আর vocabuilder । মুখস্থ করছিলাম ১৫০০ এর মত এখন একটাও মনে নাই। তারপর ভয়ে আর GRE ধরা হয় নি, ভুলটা ঐ জায়গায়, মনে করতাম GRE সবজায়গায় লাগে । আজ পরিষ্কার করে বলে দি, GRE শুধু আমেরিকায় লাগে,কানাডার এক দুইটা ভার্সিটিতে । আর অষ্ট্রেলিয়া,ইউরোপ, কানাডার ৯৯% ভার্সিটির কোথাও GRE লাগে না । তাই যারা আমেরিকা বাদে অন্যান্য দেশগুলো টার্গট করতেছেন এই ভুলধারনা নিয়ে কাথা বালিশ মুড়ি দিয়েন না ।

৩. IELTS এর পয়েন্ট

তর্জমা : অষ্ট্রেলিয়াতে আসার জন্য IELTS কত লাগে । আমার উত্তর ৬.৫। তার বেশি তুলে আসলে কোন লাভ নাই । কারন অষ্ট্রেলিয়াতে আইএলটিএস এর রেজাল্ট স্কলারশিপে কোন ভূমিকা রাখে না । তা শুধু এডমিশনের condition. অনেক ভার্সিটি আইএলটিএস না থাকলেও consider করে । তাই অষ্ট্রেলিয়ায় আসার জন্য আইএলটিএস ৮.০ এর পিছনে না দৌড়াদৌড়ি করে একটা research paper লিখুন । কাজে লাগবে ।

৪. ইমেইল আইডি:

তর্জমা: জুনিয়ররা যখন ইমেইল করে অনেকের আইডি থাকে এরকম : [email protected]
আমার সাজেশন দয়া করে নিজের ইমেইল আইডিগুলো করেন এরকম:
[email protected]
কারন কারো ইমেইল আইডিতে যদি কোন ডিজিট থাকে, তা যখন কোন প্রফেসরকে ইমেইল করবেন তা ডিজিটের কারনে স্পামফোল্ডারে জমা হতে পারে ।
আর ইমেইল সার্ভার gmail or yahoo. এটা পুরোপুরি আপনার ইচ্ছা। তবে আমি prefer করি gmail । কারন অনেক সময় দেখলাম yahoo এর মেইলগুলো স্পামে জমা হয় ।

আজ আর বাড়াবো না, দ্বিতীয় পর্বতে থাকবে : চুয়েটের গবেষণায় অবস্থান এবং হায়ারস্টাডি
এবং তৃতীয়পর্বতে :কিভাবে প্রেমপত্র লিখবেন প্রফেসরকে

পরিচয়ে,
সায়েদুল মোরসালিন
মানসিক কামলা
Macquarie University


উচ্চশিক্ষার ইতিকথা – কীভাবে শুরু করব এবং কিছু সাধারণ ভুল

উচ্চশিক্ষার ইতিকথা-তৃতীয় পর্ব (অষ্ট্রেলিয়া, স্কলারশিপ এবং সুযোগ-সুবিধা)

উচ্চশিক্ষার ইতিকথা –চতুর্থ পর্ব

উচ্চশিক্ষার ইতিকথা-পঞ্চম পর্ব