এশিয়া কাপ ২০১৬ এ পাকিস্তানের সাথে বাংলাদেশের টি২০ ম্যাচে জেতার পরের, ঘটনাঃ
 
“‘ইংলিশ প্লিজ’ বলে শুরুতেই প্রশ্নকর্তাকে ইংরেজিতে কথা বলার অনুরোধ জানিয়ে রাখলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। মিরপুরের ইনডোরে কাল ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেলের ওই সাংবাদিক তবু কথা বলা শুরু করলেন হিন্দিতে। এই দেখে মাশরাফি চট করে ক্যামেরার ফ্রেম থেকেই সরে গেলেন। পরে প্রশ্নোত্তর পর্বটা ইংরেজিতে শুরু করেও মাঝে একবার হিন্দিতে ফিরে যেতে চেষ্টা করলেন সাংবাদিক। মাশরাফির সাড়া পেলেন না তখনো। পরে কলকাতার তিন-চারজন সাংবাদিক অবশ্য বাংলাতেই সাক্ষাৎকার নিলেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়কের।” (সূত্রঃ প্রথম আলো)
 
২০১৫ এর জুনে বাংলাদেশ- ভারত টেস্ট ম্যাচের সময়কাল, ঘটনাঃ
 
“একটু অবাক হয়েই শুনলাম আমরা সংবাদ সম্মেলনের একেবারে শেষ দিকে এক ভারতীয় সাংবাদিক সাকিবকে হিন্দিতে প্রশ্ন করলেন! আমার আধাআধি হিন্দিজ্ঞানে যা বুঝলাম, ভদ্রলোক বললেন, ‘আপনি তো হিন্দি বোঝেন, হিন্দিতে যদি একটু টেস্টের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে বলতেন।’ আমরা নিশ্বাস বন্ধ করে তাকিয়ে আছি। বছরের পর বছর আইপিএল খেলার সুবাদে সাকিব নিশ্চয়ই হিন্দি বোঝেন; হিন্দি বোঝা বা বলায় তো দোষের কিছু নেই। তাই বলে জাতীয় দলের সংবাদ সম্মেলনে হিন্দিতে উত্তর দিয়ে দেউলিয়া করে দেবেন সাকিব! সাকিব একটু সময় ভদ্রলোকের দিকে তাকিয়ে থেকে শুদ্ধ ইংরেজীতে বললেন, ‘স্যরি, আমি আপনার কথা বুঝতে পারিনি। ইংরেজীতে বলবেন প্লিজ।’ হিন্দি বলবেন কী; সাকিব হিন্দি বুঝতেই পারেন না। হা হা হা হা…… হো হো হো হো…….” (সূত্রঃ দেবব্রত মুখোপাধ্যায়)
 
পাকিস্তান সুপার লিগ ২০১৬ তে পেশোয়ার জালমির হয়ে দূর্দান্ত খেলে যাচ্ছিলেন তামিম ইকবাল, এবারের ঘটনা সেখানকারঃ
 
“তামিম প্রথম দুই ম্যাচে পেয়েছেন দুটি হাফসেঞ্চুরি। তৃতীয় ম্যাচে রান না পেলেও চতুর্থ ম্যাচে আবারও রানে ফিরেছেন দেশসেরা ওপেনার। দ্বিতীয় ম্যাচে ম্যাচসেরার পুরস্কার পাওয়া তামিমকে বিব্রতকর প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তামিমকে পাকিস্তানি ধারাভাষ্যকার রমিজ রাজা জিজ্ঞেস করেন, ‘আমি তো তোমার ভাষা জানি না, ইংরেজিতে বলবে? নাকি…?’ তামিম বুঝিয়ে দেন, তিনি ইংরেজিতেই কথা বলবেন। এরপর ইংরেজিতেই কথা হয় দুজনের।” (সূত্রঃ পিএসএল)
 

পাদটীকাঃ বাংলা বলতে বা বলাতে না চাইলেও কীভাবে কী করতে হয় সেটা আমরা উপর্যুক্ত ঘটনাগুলো দেখে জানতে পারি। অন্য ভাষায় কথা বলতে পারা কিংবা জানা একটি বিশেষ গুণ। কিন্তু ক্ষেত্র বিশেষে কিংবা পরিস্থিতিতে সেই গুণটুকু লুকিয়ে রাখাটা হয়ত তেমন খারাপ না। 😛


আরো পড়তে পারেনঃ