পর্ব – ০৯/09
আসলে Higher Study ব্যাপার টা 2010 এর আগে ব্যাপকভাবে এজেন্সির নিয়ন্ত্রণে ছিলো। IELTS ছাড়া, MOI দিয়ে এছাড়াও নানা ধান্দাবাজি করে ইউরোপে, কানাডাতে 10-20 লাখ টাকা নিয়ে Student visa তে লোক পাঠানো। নানান কাহিনী। মূলত এই বাটপারদের জন্যই এখন প্রায় Europe এর সব দেশে IELTS Score বাধ্যতামূলক। গুটিকয়েক বিশ্ববিদ্যালয় MOI নিলেও, embassy নট নড়ন চড়ন। ও ভিসায় দিবে নাহ IELTS ছাড়া তবে PhD program এর কথা আলাদা। তাদের ফান্ড থাকে।বর্তমানে 2010 সালের পরে অনেক Facebook Group এ Volunteer Contribution এর জন্য অনেকটাই তথ্য সাধারণ শিক্ষার্থীদের হাতের নাগালে চলে আসছে। তারা গ্রুপে সার্চ করলেই নানান তথ্য পায়। এখনও কিছু গ্রুপ আছে যারা Strickly volunteer based এই দেশ সেবা করে যাচ্ছে। এমনকি এখন যে Bangladeshi Student and Alumni Association in Germany (BSAAG) গ্রুপ পোস্ট করছি তারা বেশ ভালো ভাবে Volunteer Contribution করে উচ্চশিক্ষার প্রসারে অবদান রেখে যাচ্ছে।


কিন্তু বর্তমানে নতুন Facebook ভিত্তিক নয়া এজেন্সির আগমন ঘটেছে। এজেন্সিরা এবার বুঝতে পেরেছে Social media ছাড়া ব্যবসা অচল। 2018-19 থেকেই আমি লক্ষ্য করছি Scholarship এর নাম দিয়ে নানান নামে গ্রুপ বের হয়েছে। এবং তারা রীতিমত ফাঁদ পেতেছেন। সাধারণ শিক্ষার্থীরা ফাঁদে পা ও দিচ্ছে!! কিছুদিন আগে দেখলাম এক গ্রুপে Turkiye Burslari Scholarship এ আবেদন করে দিয়েছেন একজনকে 50,000/- টাকার বিনিময়ে!! ভাবা যায়!! শুধু আবেদন তাও!! এখন বিভিন্ন Scholarship এ সঠিক ভাবে আবেদন করে দেওয়ার কথা বলে বিভিন্ন এজেন্সি গড়ে উঠেছে যারা 500 টাকা থেকে শুরু করে যে যা পারে নিচ্ছে!!

এছাড়া SOP, Recommendation letter এসব চেকিং এর নামেও ইনবক্সে এসব ধান্দাবাজি চলছেই!! ভাবা যায়?? SOP চেক করে কিভাবে কোন Criteria এর ভিত্তিতে মার্কিং করবে এটা কেউ জানে না! শুধু ওই Admission authority ছাড়া।

অথচ Grammarly এর মত সার্ভিসের Premium subscription আছে যে কোন English Document এর Grammatical mistake চেক করতে। আর মান যাচাই?? USA তে আবেদনের জন্য?? EMK Center ফ্রি বসে আছে। তারা বিনামূল্য চেক করে দিবে। আর USA তে আবেদনের প্রস্তুতি নিলে বিশ্বের যে কোন দেশে আবেদনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়ে যায়।

এমনকি এখন Agency গুলো চমৎকার সব নাম দিচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়েও বিভিন্ন ক্লাব, গ্রুপকে টার্গেট করেও কাজ চালাচ্ছে!! তারা Ambassador দিচ্ছে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে। এমনকি Ambassador দের বিভিন্ন সুবিধা দিবে যেমন Mentoring, Skill development, leadership training। এসব নানা লোভনীয় অফার দিয়ে এখন প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে আধুনিক প্রচারণাতে মেতেছে। সাধারণ কিছু বোকা শিক্ষার্থীরাও ফাঁদে পা দিচ্ছে। বলতে গেলে Agency গুলো আধুনিক হয়েছে। 

এসব আধুনিক Agency এর সাথে কিছু সুনামধন্য Scholarship পাওয়া লোকজনও যুক্ত হয়েছে। এসব পাবলিক টাকার জন্য মনে হয় নিজের সন্তানকেও বেঁচে দিবে!! আসলে বাঙালী টাকার লোভ সামলাতে পারে নাহ 🙂

মনে রাখবেন আপনার SOP, CV, Passport, Transcript, Certificate এসব একান্তই ব্যক্তিগত। ভুলেও শেয়ার করবেন নাহ যার তার সাথে।

এসব সচেতনামূলক কার্যক্রমের প্রচার করতেই আমার এই রকম সিরিজ ভিত্তিক লেখা। আজ সময় ছিলো লিখে ফেললাম। আগামী পর্বে আবার নতুন কোন বিষয় নিয়ে লেখব।

সাধু সাবধান এসব নয়া বাটপার দের থেকে!!!

শুভ কামনা সকল উচ্চশিক্ষা প্রার্থীদের।

#smsnobin77_higher_study

লেখকের পরিচয়ঃ
এস এম সারওয়ার নবীন
সিএসই (Master program এ অধ্যায়নরত), জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা