Naimur Hridoy

জার্মানিতে আবেদন করার ক্ষেত্রে অনেক সময় ব্যাচেলরে কত ECTS কমপ্লিট করা হয়েছে সেটা জানতে চাওয়া হয়। সমস্যাটা হচ্ছে, জার্মানিতে সকল ইউনিভার্সিটি ECTS এর ক্ষেত্রে একটা সাধারন নিয়ম মেনে চললেও, আমাদের দেশে ক্রেডিট সিস্টেমের কোন সাধারন নিয়ম নাই। এখানে একই সাবজেক্টে ভিন্ন ভিন্ন ইউনিভার্সিটি ভিন্ন ভিন্ন টোটাল ক্রেডিট রাখে। কিন্তু জার্মানিতে দেখা যায় ৩ বছরের ব্যাচেলর কোর্সের জন্য ১৮০ ECTS এবং ২ বছরের মাস্টার্সের জন্য ১২০ ECTS. এটা সব ইউনিভার্সিটিই মেনে চলে। বুঝাই যাচ্ছে যে বছরে গড়ে জার্মানিতে ৬০ ECTS কমপ্লিট করা হয়। তো আপনি এখন কিভাবে আপনার ক্রেডিট কে ECTS এ কনভার্ট করবেন? এটার জন্য আপনার ব্যাচেলরের টোটাল ক্রেডিটের দিকে তাকাতে হবে। উদাহরন হিসেবে আমি এখানে আমার BSC ক্রেডিট কে ECTS এ কনভার্ট করে দেখাবো।আমার ৪ বছরের BSC তে টোটাল ক্রেডিট ছিল ১৪৮।

এই হিসেবে আমি বছরে গড়ে (১৪৮/৪) বা ৩৭ ক্রেডিট কমপ্লিট করেছি। এখন ৬০ কে ৩৭ দিয়ে ভাগ করলে আসে ১.৬২। সুতরাং আমার ক্ষেত্রে ১ ক্রেডিট = ১.৬২ ECTS এবং BSC তে টোটাল ছিল ২৪০ ECTS। এখন আপনার ব্যাচেলরের টোটাল ক্রেডিট দিয়ে এভাবে হিসেব করলেই আপনার ক্ষেত্রে ১ ক্রেডিট কত ECTS সেটা বের হয়ে আসবে।এখন আসি কোর্সের ক্ষেত্রে কিভাবে এটা কনভার্ট করবেন। সাধারনত জার্মানিতে প্রতি কোর্সের জন্য ৬ ECTS থাকে, আমাদের জন্য হয় ৩ ক্রেডিট। কম বেশী সব জায়গায়ই হয় কোর্সের ক্ষেত্রে। তাই স্বাভাবিক ভাবে হিসেব করলে কোর্সের জন্য ১ ক্রেডিট = ২ ECTS ধরা যায়।

এখানেও যদি আমরা টোটাল ক্রেডিট TO টোটাল ECTS হিসেবে আনি তাহলে দেখা যায় যে রিকোয়ার্ড কোর্স কভারেজ ভালোভাবে হয় না। তাই আমার মতে শুধুমাত্র কোর্সের ক্ষেত্রে ১ ক্রেডিট = ২ ECTS ধরাই যায়। তাই কোথাও যদি বলা হয় যে এই ফিল্ডে ৩০ ECTS কমপ্লিট থাকা লাগবে তাহলে আমি বুঝে নিতে পারি যে ঐ ফিল্ডে আমার ১৫ ক্রেডিট বা ৫ টা কোর্স কমপ্লিট থাকা লাগবে।আশা করি এখন ক্রেডিট থেকে ECTS কনভার্ট করতে কারো ঝামেলা হবে না। যেহেতু এটা একটা সেন্সিটিভ ব্যাপার এবং আমার হিসেবেও ভুল থাকতে পারে, তাই কোন বড় ভাইয়া অথবা আপু ভুল ধরিয়ে দিলে খুশীই হবো (যদি থাকে) 🙂

FAQ:

Alamgir Hossain Raju ভাই, এই ব্যাপারটা ঐকিক নিয়ম না। ইসিটিএস ক্যালকুলেট করে প্রতি ক্রেডিটে আপনি কত ওয়ার্কিং আওয়ার করলেন। জার্মানিতে সাধারণত ১ ইসিটিএস মানে হচ্ছে ৩০ ওয়ার্কিং আওয়ার। এটা ইউরোপে কান্ট্রি ওয়াইজ ভ্যারি করে। কোন কোন দেশে ২৫ ওয়ার্কিং আওয়ার কে এক ইসিটিএস হিসেবে কাউন্ট করে। এই ওয়ার্কিং আওয়ারে, ক্লাস পিরিয়ড, টিউটোরিয়াল, ফাইনাল এক্সামের আগে আপনি প্রিপারেশন এর জন্য কেমন সময় পেয়েছেন, ইভেন আপনার পরীক্ষার লেংথ এসব হিসেব করে ক্যালকুলেট করা হয়। তো, এতসব ঝামেলা করে ইসিটিএস ক্যালকুলেট না করার জন্য, ইউনি এসিস্ট এবং এডমিশন কমিটি গুলো ভার্সিটি গুলোর একটা সেন্ট্রাল ডাটাবেজ থেকে আপনার ভার্সিটির কোর্সের ইকুইভ্যালেন্সি হিসেব করে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই যেটা ১৮০ ইসিটিএস হয় আমাদের দেশের ইউনি গুলোর ক্ষেত্রে।

  • Naimur Hridoy ভাইয়া, আমি জানি আসল হিসেবটা এত সহজ না। কিন্তু ক্লাস পিরিয়ড, টিউটোরিয়াল, ফাইনাল এক্সামের প্রিপারেশন এর জন্য সময়, পরীক্ষার লেংথ এইসব হিসেব করা তো আর আমাদের পক্ষে সম্ভব না। তাই একটা সাধারন নিয়মের কথা বলেছি। আমি নিজেই একটা ইউনিভার্সিটিতে আমার কনভার্সন নিয়মটা দেখেছিলাম। পরে মনে করতে না পারায় গোলাম মহিউদ্দিন ভাইয়ের পোস্ট দেখে ফাইনাল ডিসিশন নেই পোস্টটা দেওয়ার।
  • Limon Khan তার মানে কি ইউরোপের বিভিন্ন দেশের ECT কাউন্ট আলাদাভাবে হয়..? এ ব্যাপারে আমার কিছুটা সংশয় আছে। যদি তাই হয় তাহলে তারা যে এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের আওতায় এক দেশ থেকে অন্য দেশের বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে পড়তে যায় সেটা সম্ভব হওয়ার কথা না। ইউরোপের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের আবেদন নিয়ে জানার সময় দেখলাম প্রায় সব দেশই এক সাবজেক্টে ৭.৫ ইসিটি কাউন্ট করে।
  • Alamgir Hossain Raju ভাই, আমার ইউনি তে আমাকে ১৬৩ ক্রেডিট কম্পলিট করতে হইসে ৪ বছরে। সে হিসেবে আমার প্রতি ক্রেডিটে ১.৪৭ ইসিটিএস হয়। তাহলে আমার ৪ বছরে ২৪০ ইসিটিএস হয়ে যাওয়ার কথা। কিন্তু ভাই, ইউনি এসিস্ট আমার বেশ কয়েকটা এপ্লিকেশনই ফরোয়ার্ড করেনাই, বলসে আমার মাত্র ১৮০ ইসিটিএস 😅
  • Naimur Hridoy: Limon Khan ভাইয়া, আমি কোর্সের ক্ষেত্রে ৪, ৬, ৮, ৯ এমন ধরনের ECTS দেখেছি। তবে সাধারনত দেখেছি ৬ ECTS. আর ECTS যেই দেশ যেভাবেই ক্যালকুলেট করুক না কেন, তাদের টোটাল ECTS একই হয় (ব্যাচেলর ১৮০ ও মাস্টার্স ১২০)। তাই হয়ত তাদের এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামে সমস্যা হয় না।
  • Naimur Hridoy: Alamgir Hossain Raju ভাই, আসলে কোন ইউনিভার্সাল নিয়ম না থাকায় যে যেভাবে খুশি কনভার্সন করে। মাঝে দিয়ে আমরা প্যারায় থাকি 😃
  • Limon Khan রাজু ভাই, আপনার ৪ বছরে যদি ১৬৩ ক্রেডিট করার পর ও সেটার ECT ইকুভ্যালেন্স যদি ১৮০ হয় তাহলে যারা মাত্র ১২৪ ক্রেডিট এর বিবিএ করে তাদের ক্যালকুলেশনতো কোন ভাবেই রিক্যুয়ারমেন্ট ম্যাচ করা তো দূরে থাক আশেপাশেও যায় না। আমার মনে হয় সাবজেক্ট স্পেসিফিক ক্রেডিট ও সেই ক্ষেত্রে একটা বড় ফ্যাক্টর এডমিশনের ক্ষেত্রে। এবং সাবজেক্ট হিসেবে ইসিটি কাউন্টের ধরনও সম্ভবত আলাদা।