জার্মানিতে থাকাকালীন কিছু সমস্যা এবং সতর্কতা

 

বাসস্থান খোজা এবং সমস্যা (online)

 

আমরা বাসার জন্য সবার প্রথম online অপশন গুলা খুঁজি । সেখানে তুমি ইমেইল করলা তারপর তোমাকে পিকচার সহ বাসার একটা ছবি send করা হল । বাসা দেখে তুমি অনেক খুশি ,অনেক সুন্দর বাসা । তাই তুমি early বাসাটা নিয়ে নিতে চাইতেছ । তাকে তুমি ইমেইল করবে, সে তোমাকে একটা contract paper সেন্ড করবে আর  বলবে এটাই সাইন করে তাকে একটা কপি সেন্ড করার জন্য । তুমি সেটাই করলে । তারপর সে তোমাকে বলবে সে তার husband/grandfather/father এর কাছ থেকে একটা ফ্লাট পেয়েছে কিন্তু সে uk/india/usa তে জব করে তাই সে তার ফ্লাট ভাড়া দিয়ে দিবে । এর বাসা টা পেতে হলে তোমাকে তার নাম এ moneygram/westernunion এর মাধ্যমে টাকা সেন্ড করতে বলবে ।সে টাকা পাবার পর তোমাকে বাসার key সেন্ড করে দিবে অথবা সে নিজে এসে তোমাকে বাসা বুযীয়ে দিয়ে যাবে  । এমন type এর গল্প যদি নিজ হাতে contract paper সাইন করার আগে কেও বলে তাহলে ধরে নিবা সে ১০০% scammer। টাকা দিবা ত ধরা খাবা ।

 

বাঙ্গালি বাসা সমস্যা

 

থাকার জন্য প্লেস খুঁজছ কিন্তু পাচ্ছ না?   তাই পরিচিত বাঙ্গালি ভাই এর বাসাই উঠে পরেছ কিন্তু anmeldung ছাড়া। ২ দিন পর কি তার সাথে তোমার কোনও সমস্যা হতে পারে না? বাঙ্গালি মানুষ হওয়াটাই নরমাল । জার্মানি তে যেহেতু  তোমার লম্বা সময় থাকার ইচ্ছা তাহলে যা কিছু করবে সব কিছু তে যেন  ডকুমেন্টস ঠিকঠাক থাকে । তা নাহলে যে কোনও সময়ে যে কোনও সমস্যাই পড়তে পারো । হতে পারে অনেক illegal আবদার সে তোমার কাছে করে বসবে । তোমাকে যে  টাকা তে রুম ভাড়া দিয়েছে কিছু দিন পর তার চাইতে বেশি ভাড়া চাইবে , যদি সে জানতে পারে তুমি কোনও সমস্যাই আছ আর সে যা বলবে তুমি মেনে নিবে তাহলেত কথাই নাই। হয়ত কথায়  কথায় তোমাকে পুলিশ এর ভয় ও দেখাবে  কিন্তু মনে রাখবে পুলিশ নিয়ে আসলেও সে তোমার কিছুই করতে পারবে না, যদিনা সে তোমার সাথে লিগাল কোনও ডকুমেন্টস করে থাকে । অবশ্যই  অন্য একটা অপশন রাখবা যেখানে তুমি কোন সমস্যায় পরলে থাকতে পারো । কোন সমস্যা হলে পুলিশ কে ইনফরম কর তারা ইনস্ট্যান্ট তোমাকে সাহায্য করবে  এমনকি তুমি যদি জার্মান নাও পারো তারা তোমার জন্য দোভাষী নিয়ে আসবে। যখনি তুমি কোন বাসায়  উঠবে ওই তারিখে কিছু ছবি তুলে ফেলো । সে যেমন তোমাকে রুম দিবে, বের হয়ে যাবার সময়ে যেন তেমনই তাকে দিয়ে যেতে পারো ।

 

টাকা ধার দেওয়া সমস্যা

 

তোমার খুব ক্লোজ বন্ধু কিছু টাকা চেয়েছে না দিলে হয়ত মন খারাপ করবে । আর বন্ধু কে না কি করে করি । যাকে টাকা  দিবে  সে কি তোমার টাকা ঠিক সময়ে ফিরিয়ে দিতে পারবে ? জার্মানিতে তুমি কাউকে টাকা দিবে তারপর সময় মত সে তোমার টাকা ফিরিয়ে না দিলে তোমার কিছুই করার থাকবে না এমনকি তুমি পুলিশের কাছে গেলেও তারা তোমাকে কোন সাহায্য করতে পারবে না, কারণ এটা তাদের জার্মান LAW তে নেই  । এখন তুমি তাকে cash টাকা দিয়েছ তাই তোমার কাছে প্রমাণ নাই  কিন্তু তুমি একটু মাথা খাটিয়ে তার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এ টাকা দিলা , এবারতো তাহলে প্রমাণ আছে । অমুক তারিখ এ তমুক পরিমাণ টাকা দিয়েছ । এবার তুমি পুলিশ এর কাছে গেলে কিন্তু হায় ! পুলিশ এবার ও তোমাকে ফিরিয়ে দিলো, এবার ও পুলিশ কিছুই করতে পারবে না হতে পারে সে টাকা তুমি তোমার বন্ধু কে গিফট ও দিতে পারো । এমন ই এক সমস্যায় আমি পুলিশ এর সাহায্য চেয়েছিলাম তারপর পুলিশ আমাকে যা বলল সেটা শুনার জন্য প্রস্তুত ছিলাম না । আমাকে বলা হল পুলিশ তার নিজের বাসা নেবার সময় দালাল তার ১৫০০০ ইউরো মেরে দিয়েছে কিন্তু সে কিছুই করতে পারেনি । এখন কোনও lawyer এর কাছে গেলে এর জন্য সে ১৫০০ ইউরো সার্ভিস ফী নিবে কিন্তু কাজ এর কাজ কিছুই হবে না । তবে সবার ইউনিভার্সিটিতে তাদের নিজেদের lawyer তাদের স্টুডেন্টদের ফ্রীতে সাহায্য করে ।তাদের সাথে তোমার সমস্যা নিয়ে কথা বলতে পারো।

তাহলে টাকা দিলে ফিরে পাবার কি কোনও অপশন নাই ?

 

হ্যাঁ আছে ।

 

যখন টাকা দিবে তোমার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে দিবে এবং টাকা পাঠানোর কারণ অপশনে  repaid  কথাটা লিখে দিবে । তাহলে সে তোমার টাকা মেরে দিতে পারবে না ।

 

 

মিরাজ মাহমুদ

বার্লিন ,জার্মানি