আমার আগের পোস্টে আমি আমার অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছিলাম। এই পোস্টে আমি আপনি কিভাবে আমার মত জব খুঁজতে পারেন ওইটা নিয়ে লিখবো। 

সাধারণত ৩ টা ইন্টার্ভিউ হয় । 

  1. প্রথমে তারা আপনার সাথে কথা বলবে এবং দেখবে যে Resume এর  আপনি এবং আসল আপনি একই কিনা, কথা বলতে/বুজতে পারেন কিনা। আপনার কি সত্যিই কোম্পানিতে কাজের আগ্রহ আছে কিনা। আপনি কেন জার্মানিতে কাজ করতে চান? কেন বাংলাদেশে নয়? খুব সহজ কথাবার্তা, কোম্পানি কি চায় আপনার কাছ থেকে আর আপনি কি চান কোম্পানি থেকে এইগুলা নিয়েই কথা হয়। এখানে সত্যিকারের কোনও সঠিক বা ভুল উত্তর নেই।
  1. এরপর সাধারণত বাসায় করার জন্য একটি টেস্ট দেয় যেটা আপনি ওই জব টা পেলে যা করবেন  তার উপর ছোট কাজ দিবে। সাধারণত সর্বোচ্চ ২ থেকে ৩ ঘন্টা সময় লাগবে। এইটা সব সময় নাও দিতে পারে সরাসরি Technical Interview 
  1. এরপর হয় Technical Interview , যেখানে আপনাকে কাজের সাথে সম্পর্কিত প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করা হবে যা খুব সহজ। আপনি নিয়মিত কাজ করেন এমন প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করা হবে। অথবা লাইভ কোডিং ইন্টার্ভিউ হতে পারে। যেখানে অ্যালগরিদম বা কাজের সাথে সম্পর্কিত কিছু সমাধান করতে বলা হতে পারে।  যেমন ধরেন একটা সিম্পল এপ্লিকেশন বানান আছে কিন্তু কিছু একটা কাজ করছে না ঠিক মত। আপনার কাজ হবে এই সমস্যাটা সমাধান করা 😀 আমার একটা ইন্টার্ভিউ তে তারা যেই স্যাম্পল অ্যাপটির উপরে interview নিছিল ওইটায় frontend এবং fullstack দুইটারই প্রশ্ন ছিল। তো আমাকে frontend গুলো সমাধান করতে বললে আমি ওইগুলি করে ফেলি খুব দ্রুত। এরপর কিছু সময় বাকি থাকায় আমি বলি “let me try fullstack problems too 😀 “ ওইগুলাও মোটামুটি সল্ভ করি । পরে fulstack এর রোল দিতে বলি আমাকে তারাও রাজি হয়। ইন্টার্ভিউ গুলো আসলে অনেক ইন্টারেস্টিং হয়। ইন্টার্ভিউ ভাল না হলে তো আপনার কোন ক্ষতি নাই। ভয় পাওয়ার কি আছে!  আর এইটাই মূলত আসল ইন্টারর্ভিউ এইটা ভাল করা মানে 
  1. এরপর আসে ফাইনাল ইন্টার্ভিউ,  সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আপনার সাথে HR, ম্যানেজার, CEO কথা বলতে পারে। এই ইন্টার্ভিউ টা কিছুই না। প্রথম ইন্টার্ভিউর মতই আপনার সাথে কথা বলে দেখবে আপনার সাথে তাদের মিলে কিনা। আপনি যদি কারও সাথে কথা বলেন তবে তার সম্পর্কে কিছুটা বুঝতে পারবেন যে লোকটা কেমন, ঠিক ওই রকমই।  এই স্টেপ এ সাধারণত ২/৩ জন আসে। আমি একটা কোম্পানির একটা ইঞ্জিনিয়ার এর সাথে কথা বলার পর সে আমাকে বলেছিল আমার ব্যাপারে তাদের মতামত ছিল কিছুটা এইরকম , “He is good, but he doesn’t have much experience in Agile working environments, lets see if we can find someone better, Else we will take him” 
  1. That’s all. You will have another talk about your offer letter, possible joining date and negotiating salary. I failed to negotiate my salary 😀 you shouldn’t. Tell them to give you a few days to think about it and then give them an offer. Remember you won’t be rejected for salary. Unless it’s too high or too low 😉 

কোন একটা বিষয়ে ভাল দক্ষতা, আত্মবিশ্বাস, লেগে থাকাই হল বাইরে জব পাওয়ার মূলমন্ত্র । ওহ আরেকটা কথা, আপনাকে তুখোড় প্রব্লেম সল্ভার হতে হবে না । আমি ইন্টার্ভিউর সময় কিছু algorithm & data structure এর ভিডিও practice করেছিলাম udemy.com থেকে ডাউনলোড করে। আর জব অনুযায়ী ইন্টার্ভিউ গুলো তে  real world প্রবলেম সল্ভ করতে দেয়। যেমন আমি ফ্রন্টএন্ড ডেভেলপার রোল এ অ্যাপ্লাই করায় আমাকে React JS দিয়ে সিম্পল interface তৈরি করতে দিয়েছিল। 

প্রবলেম সলভিং এর ব্যাপারে আবার বলবো যে আপনাকে খুব এক্সপার্ট হতে হবে না। এর মানে এই না যে লাগবে না। আপনি ২/৩ উইক সময় দিলেই হবে। আপনি JavaScript দিয়ে Algorithm & Data Structure এর প্রবলেম সল্ভ করেছি। আপনি আপনার প্রিয় প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ দিয়ে সল্ভ করতে পারবেন কোন সমস্যা নাই। বেশির ভাগ সময়ই আমাকে hackerrank.com এর লিঙ্ক দিত। 

কিভাবে জব খুঁজবেন আর অ্যাপ্লাই করবেন ? 

অনেক সাইট আছে জব খোঁজার। কিন্তু এই https://stackoverflow.com/jobs ওয়েবসাইট টাই যথেষ্ট। যেসব জব এ paid relocation, visa sponsor লেখা ওইসব জব এ অ্যাপ্লাই করবেন। আর job description টা পরে ওইটা অনুযায়ী cover লেটার লিখবেন। সাথে CV attach করে দিবেন।  অনেক সময় কোম্পানি লিঙ্ক শেয়ার করে কোনও চাকরীর জন্য আবেদনের জন্য। আপনি সরাসরি লিঙ্কটিতে গিয়ে আবেদন ও করতে পারেন। https://angel.co/ সাইট টাও অনেক ভাল। আপনি এইখান থেকে অ্যাপ্লাই করতে পারেন।

Linkedin থেকেও আবেদন করতে পারেন। সাথে recruiter কেও একটা মেসেজ দিবেন। আর যত পারেন recruiter দের আপনার linkedin এ অ্যাড করবেন। লিঙ্কেদিন এর premium মেম্বারশিপ নিতে পারলে আর ভাল হয় এতে সরাসরি recruiter দের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন। প্রথম মাস ফ্রি থাকে। তবে এইটা শেষের দিকে করবেন। মানে যখন আপনার মনে হবে আপনি এখন পুরোপুরি তৈরি। 

আপনার যদি কোন একটা জব রোল একদম পছন্দ হয় আর একদম পারফেক্ট মনে হয় আপনার জন্য। আপনি ঐ কোম্পানির linkedin পেইজ এ গিয়ে HR, Recruiter, এমনকি অন্য কেউ যে আপনার কাঙ্ক্ষিত রোলে কাজ করছে তাকেও Request আর ম্যাসেজ দিয়ে দেখেন। 

শুধুমাত্র “hello” অথবা “Hi want to talk to you, can you please reply?” টাইপ ম্যাসেজ না দিয়ে সরাসরি বলুন যে আপনি ওই কোম্পানিতে ওই রোলে কাজ করতে ইন্টারেস্টেড আপনার মনে হচ্ছে আপনি রোলটার জন্য পারফেক্ট , আপনি যদি আপনার সম্ভাব্য টিমম্যাট কে ম্যাসেজ দেন তাহলে বলেন যে আপনার কথা বলতে HR অথবা টিম লিড কে, অনেক সময় আপনি ওদের ইমেইল এড্রেস ও পাবেন। ওইখানেও একটা ইমেইল করতে পারেন যদি পেয়ে থাকেন। সাথে বলে দিয়েন যে আপনি লিঙ্কেদিন ও ম্যাসেজ দিয়েছিলেন যদি দিয়ে থাকেন। এতে করে আপনি তাদের নজরে আসার চান্স বেশি। আর ওরাও বুজতে আপনি আসলেই ইন্টারেস্টেড। আর হ্যাঁ অবশ্যই কোম্পানি সম্পর্কে ভাল করে জেনে নিবেন। 

আর http://relocate.me/relocation-tips/ এই সাইট তা দেখতে পারেন। জবে অ্যাপ্লাই করার পাশাপাশি বিভিন্ন দেশের জব সম্পর্কিত তথ্য জানতে পারবেন। কোন দেশে কি রকম বেতন, কয়দিন থাকলে নাগরিকত্ব পাবেন এসব সহ আরও বিভিন্ন তথ্য

স্যাম্পল কভার লেটার  

https://docs.google.com/document/d/1TcKAbDeZz1MB4uSCqgLpNXKwQQb5no5CxbltmR4xnSw/edit?usp=sharing

জব পেলে এমব্যাসি নিয়ে চিন্তা করার কিছুই নেই আপনি ভিসা পাবেন। তাই ভিসা নিয়ে চিন্তা না করে জব খুঁজতে থাকেন। 

শুভ কামনা! 

বোনাস!!! 

যারা এখনও স্টুডেন্ট তাদের জন্য আছে https://iaeste.org/, এই সাইট বিদেশের বিভিন্ন কোম্পানিতে ইন্টার্নশিপ এর জন্য আবেদন করা জায়। বিস্তারিত জানতে ওয়েবসাইটে গিয়ে দেখুন। !