রাফি

রাফি
অনেক দিন ধরে লিখব বলে ভাবছিলাম, কিন্তু সময়ের অভাবে লেখা হয় নি… যাই হোক, ঘটনাতে আসি…

Germany তে আছি এক বছর হল, ওদের কালচার সম্পর্কে কিছুটা জানা হয়েছে… তবে এর মধ্যে বেশ খারাপ একটা হল: সারা জীবন কুমার/কুমারি বা একা থাকা… এর আগে ছোট একটা ঘটনা বলি, এটা আরও তিন কি চার মাস আগের…

আমি আর শরিফ একটা Private বাড়িতে থাকি। বাড়িটা তিনতলা। বাসার দুই তালাতে ৫১ বছর বয়সি এক মহিলা বসবাস করতেন। তিনি প্রায় সময় ই অসুস্থ থাকতেন, এজন্যই বের হলে মাঝে মাঝে ওনাকে সাহায্য করতাম, তার জিনিস পত্র উপরে দিয়ে আসতাম। একদিন উনি নিজে বললেন রুমে চলো, প্রতিবারই মানা করতাম। তাই আর সেদিন মানা করি নি। গেলাম রুমে, কথা বলার এক পরজায়ে জানতে চাইলাম, সে একা কেন? কি করে? কে কে আছে? মহিলা জানালেন, সে বিয়ে করেন নি, তেমন কেউ নেই। এখানে একটা কাজ করে নিজে চলে, আর জীবন জাপন করে। বুঝলাম মহিলা একা বেশ কষ্টেই আছে্ন। তাই আর কথা বাড়াই নি। ভালো থাকবেন বলে চলে আসি। সপ্তাহ দু’দিন পর বাড়ির হাউজমাইসটার কে বাসায় দেখলাম, তিনি জানালেন ওই মহিলা নাকি মারা গেছেন। শুনে বেশ খারাপ লাগলো… কেউ থাকলে হয়তো দেখাশুনা করত, হাসপাতালে ও নিয়ে যেত! হায়রে একাকী জীবন…
…>

Germany,র গড় আয়ু ৮০.৮৯। যা কিনা ওরা একাই কাটিয়ে দেয়, আর তা সুধুমাত্র নিজের জন্য, কতটা Selfish…
মাঝে মাঝে মায়া হয়, আবার জিদ ও লাগে কেন একা থাকস…

এদিক দিয়ে আমরা আশিয়ান বা বাংলাদেশিরা অনেক ভালো আছি, বাবা/মা, দাদা/দাদি, ণানা/নানু পরিবারের অন্যদের কথা মনে হলেই প্রাণটা জুড়িয়ে যায়। তাদের বেশ Miss ও করি, কি আর করা…

সব শেষে বলবঃ ভালো থাকবেন আর খুব কষ্ট করে বাংলা লিখলাম, ভুল হলে মাফ করবেন… শুভ রাত্রি…

‪#‎রাফি‬, বন, এনআরভে।