এখানে পরিবেশ নিয়ে অনেক লেখালেখি সেমিনার হয়। আর বিশ্ব বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা তাতে অংশগ্রহণের সুযোগ পায়। গত মাসে একটা সেমিনার ছিল একটা টিশার্ট কোম্পানি থেকে যেটার উদ্দ্যোক্তা ছিল তিন বন্ধু (http://3freunde.de/home/about)।

রঙ্গিন যেকোনো কাপড় তৈরিতে সাদা যে কোনো কাপড়ের চেয়ে অনেক বেশী কেম্যিক্যাল এবং লবণ ব্যব্হার হয়।সাদা কাপড় এজন্য পরিবেশ বান্ধব।সাদা কাপড়কে রঙ্গিন করতে যেসব কেম্যিক্যাল এবং লবণ ব্যব্হার হয় তা ১০০% রি-সাইকেল বা রি ইউজ করা যায়না। তারা এজন্য তারা ১০০ সুতি বায়ো সাদা টি শার্ট তৈরী করে।

আর বায়ো বলতে এক্ষেত্রে তুলো চাষে ও কোনো রাসায়নিক সার বা কীটনাশক ব্যবহার করা হয়না আর পোশাক কারখানা থেকে যে বর্জ্য উতপাদিত হয় তা পুরোপুরি রি সাইকেলের প্রচেষ্টা থেকেই তারা সাদা পোশাকের ব্যাপারে অনেক বেশী উৎসাহ পেয়েছে। এটা আমাদের অনুকরনিয়। যারা পোশাক শিল্প বা ব্যবসার সাথে জড়িত তারা এটা ভাল করে জানেন সাদা পোশাক কম পরিবেশ দূষণ করে। আমি আপনি এভাবেই পরিবেশ দূষণ কমাতে পারি।

রাশা বিনতে মহিউদ্দীন

স্টুডেন্ট অফ মাস্টারস ইন ইনভাইরনমেন্ট প্রটেকশন।

স্টুটগার্ট জার্মানি।