সবকিছু ঠিক থাকার পরেও দুর্ভাগ্যবশত আপনি হয়তো ভিসা পেলেন না!ভিসা না পাওয়ার পর ব্লকড একাউন্ট এর টাকা নিয়ে অনেকেই খুব দুশ্চিন্তায় পড়ে যান.সম্ভবত বেশির ভাগ মানুষ ডয়েচে ব্যাংকে ইমেইলে ভিসা রিফিউজাল লেটার পাঠিয়ে দেন এবং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব টাকাটা পাঠাতে বলেন.কিন্তু ভিসা রিফিউজাল লেটার দিয়ে আপনি কখনোই টাকা ফেরত আনতে পারবেন না.সবকিছুরই একটা অফিসিয়াল প্রসেস থাকে.আপনার টাকা ফেরত আনতে হলেও আপনাকে এই অফিসিয়াল প্রসেসগুলো সম্পন্ন করতে হবে.ব্লকড একাউন্ট এর টাকা ফেরত আনার জন্য দুইটি ডকুমেন্ট লাগবেঃ

১. কনসুলার সার্টিফিকেট
২. ক্লোজিং অর্ডার

আমার ব্লকড একাউন্টের টাকা ফেরত আনার বাস্তব অভিজ্ঞতা

কনসুলার সার্টিফিকেট এর জন্য আপনাকে জার্মান এম্বাসীতে আবেদন করতে হবে.কনসুলার সার্টিফিকেটে তিনটা ব্যাপার সুস্পষ্টভাবে উল্লেখ করা থাকবেঃ

১. জার্মান এম্বাসী উল্লেখ করবে আপনি জার্মান ভিসার জন্য আবেদন করেছিলেন কিন্তু ভিসা পাননি
২. জার্মান এম্বাসী ডয়েচে ব্যাংককে আনুষ্ঠানিকভাবে আপনার একাউন্ট ক্লোজ করতে বলবে
৩. জার্মান এম্বাসী আপনার টাকা আপনার কাছে ট্রান্সফার করতে বলবে

ভিসা না হলে জার্মান এম্বাসী আপনাকে কনসুলার সার্টিফিকেট দিতে বাধ্য.যদি জার্মান এম্বাসী কোন ঝামেলা (যদিও ঝামেলা করার কথা না) করে তাহলে আপনি German Federal Foreign Office এর নিম্নোক্ত লিংকে গিয়ে অফিসিয়ালি কমপ্লেইন করবেন. www.auswaertiges-amt.de/EN/Service/Contact/contact_node.html?https=1

কনসুলার সার্টিফিকেট এর পরে যে ডকুমেন্টটি লাগবে সেটা হচ্ছে ক্লোজিং অর্ডার.ক্লোজিং অর্ডার এর কাজটা খুব সহজ.আপনি এই লিংক ( www.deutsche-bank.de/pfb/data/docs/pk-kredit_finanzierung-db_international_closing_order.pdf ) থেকে ক্লোজিং অর্ডার এর ফর্ম ডাউনলোড করবেন এবং যে তথ্যগুলো চাওয়া হয়েছে সেগুলো লিখে দেবেন.ক্লোজিং অর্ডারে যে তথ্য গুলো আপনাকে দিতে হবে সেগুলো হলো

১.আপনার নাম এবং ঠিকানা
২.ডয়েচে ব্যাংকে আপনার ব্লকড একাউন্ট এর যাবতীয় তথ্য
৩.আপনি বাংলাদেশে যে ব্যাংকে টাকা ট্রান্সফার করতে চান সেই ব্যাংকে আপনার একাউন্ট এর বিস্তারিত তথ্য এবং ব্যাংকের ঠিকানা
৪.আপনার সিগনেচার

আমি ঠিক নিশ্চিত নই ক্লোজিং অর্ডার জার্মান এম্বাসী থেকে সত্যায়িত করা লাগবে কিনা.এই তথ্যটা আপনি এম্বাসী থেকে জেনে নিতে পারেন অথবা ডয়েচে ব্যাংকে ইমেইল করতে পারেন.ইমেইল করবেন এই লিংকে গিয়ে www.deutsche-bank.de/pfb/content/privatkunden/konto_international-students-en.html#accordion_12586
ডয়েচে ব্যাংকের ওয়েবসাইটের ব্লকড একাউন্ট সম্পর্কিত পেইজে এই এড্রেসটা দেয়া.আমার মনে হয় অন্য কোন এড্রেসে ইমেইল না করে এখানে করাই ভালো.(আপনি ব্লকড একাউন্ট সম্পর্কে জানার জন্য ডয়েচে ব্যাংকের গভর্নরকে ইমেইল করলে ইমেইলের রিপ্লাই পাবেন না এটাই স্বাভাবিক)
আপনার সব ডকুমেন্ট রেডি! এখন আপনি কনসুলার সার্টিফিকেট এবং ক্লোজিং অর্ডারের অরিজিনাল কপি পাঠিয়ে দেবেন ডয়েচে ব্যাংকের নিম্নোক্ত ঠিকানায় :

Deutsche Bank Privat und Geschäftskunden
Ausländische Studenten
Frankfurter Str.1
04024 Leipzig
Deutschland

সব কাজ শেষ.এখন টাকা ফেরত আসতে কতদিন লাগবে ? আমি নিশ্চিত নই কতদিন লাগবে। তবে সাধারণত ৬ থেকে ৮ সপ্তাহ সময় লাগে। তবে ডয়েচে ব্যাংকের ওয়েবসাইটে লেখা “In individual cases, the process including the international transfer of the funds can take several days to complete.”

এখানে একটি স্ক্রিনশর্ট দেয়া হল। এখানে এমব্যাসিকে ইমেল করা হয়েছিল ব্লক টাকা জার্মানি থেকে কিভাবে ফিরিয়ে আনা হবে তা নিয়ে! দেখুন আর নির্ভয়/নির্ভার হোন! 🙂

নিচে Deutsche Bank এর ফেসবুক পেইজের কিছু আলোচনা আপনার বোঝার সুবিধার জন্য তুলে দেয়া হল!


hello, I have got german visa rejected, I opened student bank account 3 month ago, now I want to close my bank account I…

Posted by Rozh Abdula on Sunday, March 23, 2014


hello, i am an indian student and i opened a blocked account in your bank !!!.. but unfortunately i didnt got admission in the universities i applied for .. how can i get my money back ???

Posted by Mukand Singh Rai on Wednesday, March 26, 2014


বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

সবসময় আপডেটেড তথ্যের জন্য জার্মান এ্যাম্বাসির এবং ডয়েচে ব্যাংকের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট দেখবেন। এখানে শুধুমাত্র অভিজ্ঞতা বর্ণনা করা হল। সকল এপ্লিকেশন ফর্ম, ঠিকানা ইত্যাদি এর জন্য অফিসিয়াল ওয়েবসাইট দেখুন। ধন্যবাদ।

ডয়েচে ব্যাংকঃ https://www.deutsche-bank.de/pfb/content/privatkunden/konto_international-students-en.html
জার্মান এমব্যাসি ঢাকাঃ http://www.dhaka.diplo.de/visa