বিশেষ বিজ্ঞপ্তি

……………………

এত দ্বারা সকলের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, মেহেদি হাসান(ফেসবুকঃ Mehedi Hasan, University of Duisburg-Essen, B.Sc in Computer Engineering পড়ছে, পিতাঃ মোস্তফা কামাল, মাতাঃ রাফিজা পারভীন, সাংঃ রঘুনাথপুর, কাউখালি, পিরোজপুর) এর বিরুদ্ধে গুরুতর কিছু অভিযোগ তথ্য প্রমাণসহ আমাদের কাছে এসেছে। তার ব্যাপারে তিনটি কঠিন অভিযোগ হলঃ

১, মেহেদি হাসান, এজেন্সি/দালাল হিসেবে কাজ করছেন।

২, মেহেদি হাসান ,বাংলাদেশ থেকে জার্মানিতে আনার নাম করে লোকজন থেকে টাকা নিয়ে পালিয়ে গিয়েছেন।

৩, মেহেদি হাসান, Bangladesh University of Business & Technology (BUBT) থেকে জাল/নকল সার্টিফিকেট বানানোর সাথে যুক্ত।

তাই সবাইকে আরো একবার জানানো হচ্ছে যে, “বাংলাদেশি স্টুডেন্ট এন্ড এলাম্নাই এ্যাসোসিয়েশন – জার্মান প্রবাসে” এর সাথে মেহেদি হাসানের কোন সম্পর্ক নেই। সে আমাদের এডমিন বা মডারেটর কিছুই ছিল না। এরকম মেম্বারদের সাথে তো আমাদের সম্পর্ক থাকতে পারে না।
আমাদের ফেসবুক গ্রুপে ৫০,০০০+ মেম্বার্স রয়েছে এবং তাদের সবার ব্যাক্তিগত কার্যক্রমের দায়ভার আমদের না। এজেন্সি/দালাল থেকে বারবার আমরা দূরে থাকতে বলেছি। এই ব্যাপারে এখানে(দালাল থেকে সাবধান) বিস্তারিত তথ্য আছে।

আমাদের কাছে মেহেদি হাসানের বিরুদ্ধে উপযুক্ত তথ্য-প্রমাণ এসেছে এবং সেই সুবাদে তার কাছ থেকে সবাইকে দূরে থাকার আহ্বান করা হল। তাই মেহেদি বা মেহেদির মত এজেন্সি/দালাদের দ্বারা আপনি ক্ষতিগ্রস্থ হলে এর দায়ভার শুধুমাত্র আপনার। ধন্যবাদ।

– আর কেউ তার দ্বারা প্রতারিত হলে এখানে ইমেল করে জানাতে পারেনঃ [email protected] কিংবা ফেসবুকে মেসেজ করেও জানাতে পারেনঃ এখানে ক্লিক করে কিংবা মেইন ফেসবুক গ্রুপে পোস্ট করতে পারেনঃ এখানে ক্লিক করে।

……………………

বিজ্ঞপ্তিটি শেষ হল।

আরো পড়ুনঃ

আমি সেই তানজিয়া যার হাতের রান্না খেয়ে যাওয়ার পরে মেহেদী বলেছিল, ‘আপু তুমিও আমাকে নিয়ে গর্ব করতে পারবা’। কতখানি খারাপ লাগছে আমার আজকে এই পোস্টটা লিখতে ভাষায় বলে বোঝানো সম্ভব না। অনেকবার অনেকভাবে প্রশ্ন করেছি ‘পিচ্চি তুমি কি কখনো টাকা নিয়েছ কারো কাছ থেকে? তোমাকে মানুষ বিশ্বাস করে এর অমর্যাদা করো না’। সবসময় উত্তর ছিল ‘হুম চেষ্টা করবো’। আমার লেখার কলম আগাচ্ছে না কথাগুলো যখন চিন্তা করছি, তারপরেও লিখতে হচ্ছে কারণ এটি আমাদের সামাজিক দায়বদ্ধতা।

agecy

ক্ষমা চাই সমাজের কাছে, বাংলাদেশের ছাত্র সমাজের কাছে-আমরা আপনাদের কাছে পৌছতে পারিনি গ্রহণযোগ্য হইনি….তাহলে আজকে এইকথা আমাকে লিখতে হতনা। মেহেদি হাসান ব্যাচেলর এর প্রথম বর্ষের ছাত্র জার্মানিতে (যতদুর আমরা জানি)। আমাদের গ্রুপে নানান তথ্যমূলক লেখা পোস্ট করে এবং সময় ধরে উত্তর দেয় নানান জনকে। প্রথমদিক থেকেই বলতো ইনবক্স এ সব লিখবো বিস্তারিত…এর পরে গ্রুপে উত্তর দিতে দেখলাম কিন্তু খেয়াল করলাম যার জার্মানি আসার আগে ১০০ এর মতন বন্ধু ফেইসবুক লিস্টে ছিলো দেখতে দেখতে ২০০০ পার হয়ে গেলো! সবাই কে সে ইনবক্স এ কথা বলে ওয়ান-টু-ওয়ান সাহায্য করে!নাহ! এই ব্যাপারটা আমরা জানতাম না কিন্তু অল্পকিছুদিন হলো আমাদের কাছে এসেছে নানান প্রমাণ!

যারা আমাদের গ্রুপের মেম্বর অনেকদিন ধরে তারা দেখে থাকবেন আমরা কখনো কাউকে ব্যক্তিগত আক্রমন করি না যা কিনা অন্যান্য গ্রুপের অ্যাডমিনরা প্রায়শই করে থাকেন। এমনিকে আমাদের নিয়ে হাসি তামাশা করতেও বিদেশী বাংলাদেশিদের বাধে না যা আমরা শুনি কিন্তু চুপ করে থাকি। নিজেদের ক্যারিয়ার এর পাশাপাশি এই গ্রুপের সাহায্য করতে গিয়ে আমাদের চুলাচুলির সময় নেই বলে ওনাদের এইসব ফল বিনা গালিগালাজের প্রচেষ্টার সমবেদনা জানাই। তারপরেও আজকে এই বিশেষ ব্যক্তির ব্যাপারে বলার একটিই কারন…মেহেদী হাসান অনেক গুলো ছাত্রের ক্ষতি করেছে, দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মানের তেরটা বাজিয়েছে, জার্মান ডিগ্রীর মূল্য এবং বাংলাদেশের নাম ডোবাচ্ছে ছেলেপেলের কাছ থেকে দালালি বাবদ টাকা নিয়ে মিথ্যা সার্টিফিকেট ইস্স্যু করে অ্যাডমিশন লেটার এর ব্যবস্থা করছে

প্রমাণঃ ১

The way it started in Germany. Mehedi Hasan has borrowed money from minimum three students in Germany. After this he switched off his phone, removed them from Facebook and left no option to contact them.

1

1

2

 

কে জানতো তার ইচ্ছা ৫০হাজার বাংলাদেশির এক গ্রুপ বানানো এবং সেইখানে আমাদের লক্ষ্যের সম্পুর্ন উল্টা চিন্তা-ভাবনা নিয়ে আগানো… হ্যাঁ আমরা এজেন্সির বিরুদ্ধে কথা বলি আর মেহেদির উদ্যেশ্য মানুষের সরলতার সুযোগ নিয়ে তার কাজ থেকে টাকা নেয়া। আমরা সবসময় আমাদের মেম্বরদের বলি এজেন্সী থেকে দুরে থাকতে, আমাদের এইখানে বসে সেই কিনা সমানে মানুষকে ঠকিয়ে যাচ্ছে! টাকা-পয়সা রেখে করে জোচ্চুরি!

প্রমাণঃ ২

মেহেদি কতজন স্টুডেন্ট এনেছেন তা মেসেজ করে বলছেন তার(মেহেদির) নেক্সট ভিকটিমকে। এভাবেই মেহেদি টোপ দিয়েছে আর অনেকেই গিলেছে।

1

প্রমাণঃ ৩

বাংলাদেশের দালাল-এজেন্সিগুলো ১০০% ভিসা প্রাপ্তির নিশ্চয়তা দেয়। মেহেদিও সেই পথেই এগিয়েছে!

proof 1 - definite visa

প্রমাণঃ ৪

কীভাবে মেহেদি আপনার কাছ থেকে টাকা চাইবে? দেখে নিন।

mehedi proof 1 - asking money

 

mehedi proof 2 - asking money

প্রমাণঃ ৫

মেহেদির মেসেজে তার গ্রামের বাড়ির ঠিকানা দিয়েছে। কেউ যদি এই সম্পর্কে বিস্তারিত জানেন তবে আমাদের জানাবেন।

1

11

প্রমাণঃ ৬

মেহেদির ব্যাংক ডিটেলস। কেউ দয়া করে এখানে টাকা পাঠাবেন না। এর দায়ভার সম্পূর্ণ আপনার।

1

প্রমাণঃ ৭

এজেন্সি/দালাল ব্যবসার কার্যক্রম হিসেবে মেহেদি খুলেছে একটি সিক্রেট গ্রুপ। দয়া করে কেউ সেই গ্রুপে থেকে থাকলে এক্ষুনি নিজেকে সরিয়ে নিন। বাকিদেরকেও তা জানান। নিজে নিরাপদ থাকুন, বাকিদেরও নিরাপদ রাখুন।

1

প্রমাণঃ ৮

এখানে দেখুন কতটুকু দুঃসাহস দেখিয়েছে মেহেদি। Bangladesh University of Business & Technology (BUBT)‘র মত ইউনিভার্সিটি থেকে সে বলছে জাল বা নকল সার্টিফিকেট বানানোর কথা। আমরা এই ব্যাপারে খুব তাড়াতাড়ি ডিএএডি(DAAD), জার্মান এমব্যাসি বাংলাদেশ, শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং University Grants Commission of Bangladesh (UGC) এর সাথে যোগাযোগ করব। দোষী ব্যক্তিদের অবশ্যই আইনের আয়োতায় আনা হবে।

Please stay aware of fake BUBT certificates (we have formally informed about this to German embassy Dhaka, DAAD and BUBT authority). If the necessary actions are realized, we will inform UGC and Ministry of Education.
11

1

প্রমাণঃ ৯

লক্ষ্য করলে দেখবেন প্রমাণ ৪ তে মেহেদি বলেছে যে ভিসা ১০০% নিশ্চিত!(এটা কেউই বলতে পারে না।) কিন্তু এজেন্সি/দালালদের মতই কিছুদিন পর টাকা মেরে দিতে হলে যা বলতে হয় সেটাও মেহেদি ভালভাবেই রপ্ত করেছে। এখানেই দেখে নিন তা।

proof 8

1

প্রমাণঃ ১০

এখানে মেহেদি ভিকটিমদের তার বাসার এড্রেসে ডকুমেন্ট পাঠানোর জন্য বলছে। সবাই দয়া করে এই এড্রেসের ব্যাপারে সতর্ক থাকবেন।

11

প্রমাণঃ ১১

মেহেদি প্রদত্ত এডমিশন লেটার। আমাদের তীব্র সন্দেহ আছে এটা জাল/নকল। তাই সাবধান।

1

1

1

প্রমাণঃ ১২

এজেন্সি/দালাল হিসেবে মেহেদি বলছে সে কোন কোন ইউনিভার্সিটিতে এপ্লিকেশন করছে।

1

প্রমাণঃ ১৩

মেহেদি তার ভিক্টিমদের বাসায় ফেইক/জাল ডকুমেন্টস দেখাতে বাধ্য করে। এখানে দেখে নিন সেটার প্রমাণ।

proof 7

অন্যান্য প্রমাণাদিঃ(ভিক্টিম ২)

এজেন্সি যেভাবে গলা চেপে টাকা বের করে নেয়, শুষে নেয় আপনার শেষ সম্বলটুকুও, মেহেদি কি তার চেয়ে কোন অংশে কম? দেখুন নিচের মেসেজে সে টাকা চেয়ে কীভাবে হুমকি দিচ্ছে।

mehedi proof 3 - asking money mehedi proof 4 - asking money

অন্যান্য প্রমাণাদিঃ(ভিক্টিম ৩)

মেহেদি হাসান ছেলেদের টাকা নষ্ট তো করেছেনই কিন্তু আবার টাকা দিবেন না বলে হুমকিও দেন। এখানেই দেখে নিন, কীভাবে?

1 2 3

আমাদের হাত পা বাঁধা! প্রমাণ না পেলে আমরা কিছু বলিনা এইবার প্রমানসহ আপনাদের কাছে হাজির হলাম। এর দায় ভার আমাদের গ্রুপের নয়, আমরা বারবার আপনাদের নিষেধ করি ইনবক্স এ আলাপ না করতে, এজেন্সী থেকে টাকার বিনিময়ে সেবা না নিতে…নিজে নিজে এপ্লাই করতে, আপনাদের সময় হয়না। খালি চান বাবা-মায়ের পয়সা নস্ট করতে আর সারাজীবনের জন্যে বিপদে পড়তে। এই ব্যাপারে এখানে(দালাল থেকে সাবধান) বিস্তারিত তথ্য আছে।

আমরা এই গ্রুপের অ্যাডমিনরা পর্যন্ত আপনাদের ইনবক্স এ কোনো প্রশ্ন করলে বলি গ্রুপে এসে করতে, আর আমাদের ভলান্টিয়ার যার অ্যাডমিনশিপ পর্যন্ত নাই যার সেই ছোট্ট একটা ব্যাচেলর এর ছাত্র হল মেহেদি হাসান। আপনি কী করে তার কথায় লক্ষ লক্ষ টাকা দিয়ে দিচ্ছেন? কী ভুল হচ্ছে আমাদের বলবেন কি? নাকি বাঙালীর মাগনা সার্ভিস হজম হয় না? নাকি আমরা গুটিকয় বেহুদা বাঙালী বাংলাদেশিদের ভালো চাই এইটা পছন্দ হয়না? টাকার কাছে আমরা এতই অসহায় নাকি টাকাই খালি যোগ্যতার মাপকাঠি?

ধিক্কার সেই বাঙালী সমাজের যারা মুখ বন্ধ করে বসে সার্কাস দেখেন, আর ধিক্কার সেই মানুষদের মেরুদন্ডহীন পরগাছা অন্যায় দেখলেও বলতে পারেন না। মেহেদি হাসানের মতন এক ছেলের জন্যে আর দশটা ছেলে যাতে পচে না যায়,তার ব্যবস্থা করা আমার-আপনার সকলের দায়িত্ব। যদি না পারেন, দয়া করে বাঙালী বলে মানুষের কাছে পরিচয় দিয়েন না।

সংযুক্তিঃ

১, মেহেদি হাসান এর পাসপোর্টঃ

11139502_837734206294960_1540869457_n

২, মেহেদি হাসান এর বক্তব্য যে তিনি টাকা দিবেন না। তার কাছে এই মুহুর্তে টাকা নেই। কারণ তিনি জুয়া খেলে সব টাকা নষ্ট করেছেন? বিস্তারিতঃ

1 2 3 4 5 6 7 8 9

 

Agency: এজেন্সি/দালাল – মেহেদি হাসানের প্রতারণার ফাঁদ থেকে সাবধান – পর্ব – ১

Agency: এজেন্সি/দালাল – মেহেদি হাসানের প্রতারণার ফাঁদ থেকে সাবধান – পর্ব – ২