১লা অক্টোবর ২০১৪ থেকে জার্মান এমব্যাসি ঢাকা নতুন ভিসা রেগুলেশন দিয়েছে। এই ব্যাপারে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তনগুলো হলঃ

  • আগে আইইএলটিএস/টোফেল এর সাথে ভিসা পাওয়ার কোন সম্পর্ক ছিল না। এখন এই প্রফিশিয়েন্সি দেখাতে হবে ভিসা পেতে হলে।
  • আগে জার্মান ভাষায় যারা পড়তে যাবে তাদের জার্মান ভাষায় কোন দক্ষতা দেখাতে হত না, কিন্তু এখন যারা জার্মান ভাষায় পড়তে যাবে তাদের আগে বাংলাদেশ থেকে জার্মান ভাষার ল্যাংগুয়েজ লেভেল বি১ পাশ করে দেখাতে হবে।
  • আগে ব্লকড একাউন্ট ভিসা ইন্টার্ভিউ এর আগে বাংলাদেশে করলে হত। এখন এই ব্লকড একাউন্ট ভিসা ইন্টার্ভিউ এর আগে জার্মানিতে কোন ব্যাংকে খুলতে হবে।

আপডেটঃ


এই নিয়মের বিপরীতে প্রচুর প্রশ্ন পেয়েছি আমরা। একটি বহুল আলোচিত প্রশ্ন হলঃ কেন শুধু বাংলাদেশের জন্য এই নিয়ম করা  হল? আসলে এটা একটা ভ্রান্ত ধারণা। এই নিয়ম অনেক আগে থেকে অনেক দেশেই প্রচলিত আছে/ছিল। যেমন আমাদের পাশের দেশ ভারত, শ্রীলংকা, পাকিস্তান ইত্যাদিতে অনেক আগে থেকেই ভিসা ইন্টার্ভিউ এর আগে ব্লকড টাকা জার্মানিতে পাঠাতে হত বা আইইএলটিএস/টোফেল/জার্মান ল্যাংগুয়েজ এর বাধ্যবাধকতা ছিল। বরং বাংলাদেশ এতদিন কিছুটা অতিরিক্ত সুবিধা পেয়েছে। আরেকটা প্রশ্ন হল, এই নিয়মের ফলে কি ভিসা পাওয়া কঠিন হল? আমরা বলব, না। বরং এর ফলে এজেন্সি/দালালদের দৌড়াত্ম কিছুটা হলেও কমবে এবং যোগ্য শিক্ষার্থীরাই ভিসা পাবে। তবে সবচেয়ে বিতর্কিত প্রশ্ন হল, যারা জার্মান ভাষায় পড়তে চাইছেন তাদেরও আইইএলটিএস/টোফেল লাগবে কিনা? উত্তর করার আগে আসুন আমরা দেখে নেই অন্যান্য দেশে জার্মান এমব্যাসি কী বলছে?

জার্মান এমব্যাসি শ্রীলংকাঃ

Proof of language proficiency (English or German depending on the language used in the study program

Screenshot_165

জার্মান এমব্যাসি ইন্ডিয়াঃ

Proof of language proficiency in English (TOEFL/IELTS) and/or German (if course is (partially) taught in German), not older than 2 years

Screenshot_166

তাই বলা যায় জার্মান এমব্যাসি শ্রীলংকা বা ইন্ডিয়ার মতে যারা জার্মান ভাষায় পড়তে যাবেন তাদের আইইএলটিএস/টোফেল স্কোর দেখাতে হবে কিনা তা বাধতামূলক নয় বরং বেশ কিছু ব্যাপারের উপর নির্ভরশীল।

এখন দেখা যাক জার্মান এমব্যাসি ঢাকা কী বলছে? এই লিংকে তা আছে

জার্মান এমব্যাসি ঢাকাতে আছেঃ

Screenshot_164

এখান থেকে একটি ব্যাপার পরিষ্কার যে, যারা জার্মান ভাষায় পড়তে যাবেন তাদের জার্মান ভাষার ল্যাংগুয়েজ লেভেল বি১ পাশ করার সাথে সাথে আইইএলটিএস/টোফেল লাগবে। এক্ষেত্রে একটা কথা না বললেই নয়। একটি বিশেষ মহল শিক্ষার্থীদের এই ব্যাপারে বিভ্রান্ত করছেন এবং উসকানিমূলক কথাবার্তা বলছেন। বলছেন এটা নাকি জার্মান এমাব্যাসির “প্রিন্টিং মিস্টেক”। কিন্তু জার্মান এমাব্যসি ঢাকা এরকম কোন ঘোষণা এখনও পর্যন্ত দেয় নি। যদি দেয়, তবে অবশ্যই তা অনুসরণ করা যাবে। তাই এটা নিয়ে এধরণের বিভ্রান্তি না ছড়ানোর জন্য সবাইকে অনুরোধ করব এবং নিয়মিত এমাব্যাসি আপডেট অনুসরণ করতে বলব!


এই নিয়মের বর্তমান ফলাফলঃ

  • কোন শিক্ষার্থীর ব্যাচেলর্স এর পড়ার মাধ্যম যদি ইংরেজি হয় তবে ইউনিভার্সিটি থেকে সেই হিসেবে “মিডিয়াম অফ ইন্সট্রাকশন” নামে একটি সার্টিফিকেট তোলা যায়। অনেক জার্মান বিশ্ববিদ্যালয় ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ প্রফিশিয়েন্সি হিসেবে আইইএলটিএস/টোফেল এর পরিবর্তে এটা গ্রহণ করে। তাই যেসকল শিক্ষার্থী এটা দিয়ে এপ্লাই করে জার্মান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অফার লেটার পেয়েছেন তাদের হয়ত ধারণাতেই থাকবে না যে আইইএলটিএস/টোফেল লাগবে। ফলে ভিসা রেগুলেশন দেখে তাদের ভর্তি এক সেমিস্টার পিছিয়ে দিতে হতে পারে(আইইএলটিএস/টোফেল রেজাল্ট এর জন্য)। এই ব্যাপারে সরাসরি জার্মান বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্স-কোঅর্ডিনেটর এর সাথে যোগাযোগ করতে বলব আমরা।
  • সবচেয়ে ঝামেলাতে থাকবে বর্তমানে যারা জার্মান ভাষায় জার্মানিতে পড়তে যেতে চাইছেন। কারণ তাদের জার্মান ভাষায় বি১ পাশ করতে হবে গোয়েথে ইন্সটিটিউট থেকে। এটা বেশ সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। প্রায় ৬ মাস থেকে ১ বছর লাগতে পারে এতে।
  • কীভাবে জার্মানিতে একাউন্ট খোলা যায় এই ব্যাপারে আমদের একটা বিস্তারিত পাবেন এখানে

ব্লকড একাউন্টের ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংক এর শক্ত মানি লন্ডারিং এক্ট এর কারণে অনেক ব্যাংক বিভ্রান্তিতে ভুগছে। অথচ বাংলাদেশ ব্যাংক এর “ফরেন এক্সচেঞ্জ গাইডলাইন – ভলিউম ১ – চ্যাপ্টার ১১” এর পয়েন্ট ১০(পৃষ্ঠা ৯৬-৯৭) এই ব্যাপারে স্পষ্ট নির্দেশনা দেয় আছে এবং টাকা পাঠানোর জন্য কোন বাধা নেই। সেই ডকুমেন্ট এর লিংক পাবেন এখানে ক্লিক করে।

Bangladesh Bank ForEx

এই নিয়মটি যখন প্রথম এসেছিল তখন কিন্তু সরকারি/বেসরকারি ব্যাংকগুলো এই ব্যাপারে কিছুটা অপেশাদারী মনোভাব দেখাচ্ছিল। তারা বাংলাদেশ ব্যাংক এর কথা বলে নানান টাল-বাহানা করছিলেন। ফলে এডমিশন লেটার থাকার পরও অনেকেই শুধু ব্লকড টাকা জার্মানিতে পাঠাতে পারছিলেন না বলে ভিসা ইন্টার্ভিউতে দাঁড়াতে পারছিলেন না। তবে ব্লকড একাউন্ট করাও এখন অনেক সহজ। এটা নিয়ে বিস্তারিত পাবেন এখানেঃ

ব্লকড একাউন্ট


তাহলে এখন করণীয় কী?

  • আইইএলটিএস/টোফেল এর প্রিপারেশন নিয়ে ভাল একটা স্কোর তোলা। যেমনঃ আইইইএলটিএস ব্যান্ড স্কোর ৬+ বা তার সমমানের স্কোর টোফেলে।
  • জার্মান ভাষায় পড়তে যেতে চাইলে, এখনই জার্মান শেখা শুরু করুণ। কোথায় শিখতে পারেন জার্মান ভাষা এই ব্যাপারে এখানে দেখে নিতে পারেন।
  • ব্লকড টাকা জার্মানিতে পাঠানো নিয়ে যে সংকট হয়েছিল, তা ছিল সাময়িক। তাই ধৈর্য্য রাখতে হবে এবং নিয়মিত যোগাযোগ রাখতে হবে ব্যাংক এবং এমব্যাসির সাথে।

আমাদের মত দেশে এরকম জিনিস নিয়ে আতংকিত হয়ে যায় মানুষ খুব সহজেই। কিন্তু ঠান্ডা মাথায় সব অপশন এবং সম্ভাবনা হিসেব করে পদক্ষেপ নিলে সাফল্য অবশ্যম্ভাবী। ধন্যবাদ এবং শুভ কামনা সবার জন্য।
———————————
মু. রাশিদুল হাসান

ক্রিয়েটর এবং কোর্ডিনেটর, বাংলাদেশি স্টুডেন্ট এন্ড এল্যাম্নাই এ্যাসোসিয়েশন ইন জার্মানি
(কখন, কবে?: www.facebook.com/groups/BSAAG/141991009216519/)
ফেসবুক গ্রুপঃ Bangladeshi Student and Alumni Association in Germany  (বিশ্বস্ততার সাথে ৫০,০০০+ সদস্য নিয়ে)
ওয়েবসাইটঃ www.GermanProbashe.com


জার্মানিতে এপ্লাই করার ধাপসমূহ