জার্মানি তে Student Visa নিয়ে যাওয়ার জন্য যেটা খুব প্রয়োজনীয় তা হল Blocked account খোলা। আগে শুধু ডয়েচ ব্যাংক এই সুবিধা দিত। এই বছর থেকে Fintiba ও এই সুবিধা দিচ্ছে। যেহেতু Fintiba নতুন তাই অনেকে এখানে Blocked Account খুলতে সংকোচ বোধ করছেন। আমি Fintiba তে Blocked account করেছি। তাই আমি এ নিয়ে একটু ঘাটাঘাটি করেছি। তাই আমার এই সামান্য জ্ঞান আপনাদের সাথে share করছি। Fintiba কি? Fintiba একটি প্রতিষ্ঠান যারা International students দের জন্য দুটি সেবা দিয়ে থাকে। একটি হল Blocked Account এবং health insurance. Sutor Bank এবং Fintiba হল strategic alliance যার মাধ্যমে Fintina Blocked Account খুলে থাকে। Fintiba কিভাবে কাজ করে? Fintiba পুরোপুরি online-based. কেউ যদি Blocked Account খুলতে চান তবে online এ Fintiba তে Account খুলে এরপর নিজের মুখের সামনে পাসপোর্ট এর পরিচয় পাতা এর ধরে ছবি তুলে সেই ছবি এবং নিজের পাসপোর্ট এর scan করে upload করতে হবে। এরপর Fintiba এর Team আপনার Documents পর্যবেক্ষণ করে সব ঠিকঠাক থাকলে আপনার জন্য একটি Digital Bank Account খুলবে এবং contract papers পাঠাবে। এই contract papers দিয়ে আপনি দেশ থেকে কোন ব্যাংকের মাধ্যমে Blocked Account এর টাকা পাঠাতে পারবেন। পাঠানোর সাথে সাথে একটি Blocked Account confirmation এর letter issue হবে যা জার্মান এমব্যাসি তে visa application এর সাথে দেখাতে হবে। এরপর যদি visa reject হয় তাহলে visa rejection এর letter scan করে upload করতে হবে। তাইলে টাকা ফেরত পাবেন।


Visa Approve হলে জার্মানি তে এসে কাছাকাছি যে কোন ব্যাংক এ একটি current Account খুলে তার information Fintiba account এ upload করতে হবে। এরপর প্রতিমাসে Fintiba থেকে আপনার ওই account এ প্রতি মাসে ৭২০ ইউরো আপনার current Account এ চলে যাবে। এ জন্য আপনার কাছ থেকে প্রতি মাসে ৪.৯০ ইউরো কাটা হবে।
কেন আমার Fintiba পছন্দ?


Fintiba পছন্দের প্রধান কারন হল এখানে Account খোলা সহজ। ডয়েচ ব্যাংক এর মত application form fill up করে জার্মান এমব্যাসি থেকে attested করাতে হয় না। ডয়েচ ব্যাংক application form কোন ভুল হলে আবার form fill up পাঠাতে হয় যা VIsa আবেদন প্রক্রিয়াকে সময়সাপেক্ষ করে তোলে। Fintiba এই ঝামেলা নেই। আর অনেকে মনে করেন এটা অনেক দামি যা সত্যি নয়। প্রতি মাসে ৫ ইউরো করে কাটলে ১২ মাসে ৬০ ইউরো কাটবে আর Blocked Account এর সময় ৮৯ ইউরো কাটবে। এর মানে সর্বমোট ১৪৯ ইউরো কাটবে। আমি যতটুকু জানি ডয়েচ ব্যাংক এ ১৫০ ইউরো কাটে। আর ডয়েচ ব্যাংক application form পাঠানোর খরচ আর জ্যাম ঠেলে জার্মান এমব্যাসি তে যাওয়ার সময় যদি ধরি তাহলে আমার মনে হয় না Fintiba খরচ বেশি।

Fintiba Part-2
Fintiba নিয়ে অনেকের মধ্যে এখন অনেক confusion আছে যে fintba থেকে টাকা কিভাবে তোলা
যায়।আপনি নিম্নোক্ত উপায় follow করতে পারেন।
১। visa পেয়ে প্রথম যে কাজ করতে হবে ভিসা এর ছবি তুলে আর admission letter fintiba তে upload করবেন। আর এরপর PostIdent voucher আপনার নামে ইস্যু হবে যা আপনি প্রিন্ট করে নিবেন।
২। Germany তে এসে প্রথম যে কাজ করতে হবে তা হল legitimation করা। এর জন্য যেকোনো deutsch post ব্রাঞ্চ অথবা fintiba অফিসে গিয়ে পাসপোর্ট আর PostIdent voucher নিয়ে যাবেন। এরপর যা করার ওরাই করবে।
৩। একটা Deutsch number ঠিক করা যা আপনি সব কাজের জন্য ব্যবহার করতে পারবেন।
৪। এরপর যে কাজ হবে free ব্যাংক account খোলা। এখানে আপনাকে কষ্ট করতে হবে। কারন বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন ব্যাঙ্ক student দের জন্য এই service দিয়ে থাকে। আপনার কাজ হবে শহর ঘুরে দেখা কোন bank আপনার জন্য এই সার্ভিস দিবে।
৫। এরপর অপেক্ষা করতে হবে। কয়েকদিন পরে fintiba থেকে e-mail আসবে। আপনার মোবাইল নাম্বার চেয়ে। মোবাইল নাম্বার দেওয়ার পরে fintiba আপনাকে এসএমএস দিবে। ওখানে ৬ ডিজিট এর একটা নাম্বার থাকে। এরপর আপনার fintiba তে online banking section এ ‘blocked account payout’ একটা option থাকবে। ওখানে আপনার account details দিবেন। ওটা fintiba তে দিলেই কাজ শেষ। আপনার account এ 715 ইউরো জমা হবে। যারা 100 euro বেশি দিয়েছেন তাদের ৮১৫ ইউরো জমা হবে।
৬। এরপরে আপনি আস্তে ধীরে city registration certificate এর ছবি আর TIN নাম্বার upload করে নিবেন। city registration certificate এর ৩ সপ্তাহ এর মধ্যে এই নাম্বার আপনার ডাকবক্স এ পাঠিয়ে দিবেন। এরপর certificate of foreign status এর প্রথম page প্রিন্ট করে part I এর ১,২,৩,৪, ৮ পুরন করে fintiba বা sutor bank এর ঠিকানায় পাঠিয়ে দিবেন।
৭। অনেকেই জানেন না যে fintibaএর একটি customer service office আছে যা Deutsch এবং English ভাষায় পরিচালিত হয়। যেকোনো সমস্যা call করে solve করে জেনে নিতে পারবেন। নাম্বারটি হল 069 12006206620.
আপনার Germany থাকা শুভ হোক।